উন্মাদকে থামান, জীবন নিয়ে বেঁচে থাকতে দিন: প্রধানমন্ত্রীর প্রতি রনির মিনতি !!!

উন্মাদকে থামান, জীবন নিয়ে বেঁচে থাকতে দিন: প্রধানমন্ত্রীর প্রতি রনির মিনতি !!!

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,

উন্মাদদের এবার একটু থামান । বাবা দিবসে একজন বাবার চোখের সামনে সন্তানকে হত্যা করা হয়েছে।গত দুইবছরে অর্ধডজনের বেশী দলীয় নেতা খুন হয়েছে।স্কুল ছাত্র আদনান স্কুল ছাত্রী তাসফিয়া খুন হয়েছে ।খুনিরা বীরদর্পে হাটছে । কেউ বিব্রত হচ্ছেনা,কারো ঘুম ভাঙছেনা।পাড়ায় পাড়ায় বিএনপি জামাত শিবিরের সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনীদের নেতৃত্বে সাধারন তরুন কিশোর ছেলেদের গ্যাং এ উৎসাহিত করা হচ্ছে । তাদের হাতে মাদকের ব্যবসা, জুট, ঠিকাদার, জুয়ার লাইসেন্স দেয়া হচ্ছে।সবকিছুর ফলশ্রুতিতে এ শহরে এখন খুনিদের উন্মাদনা চলছে । সন্তানহারা পরিবারের শোকের মাতমে কর্নফুলির জলে আজ কম্পন তৈরি হয়েছে, সাগরের নির্মল বাতাসও ভারী হয়ে গেছে।আগামীকাল আমিও খুন হতে পারি এই আশংকা করলেও ভুল হবেনা । ‘মাননীয় নেত্রী উন্মাদদের থামান’ বীর চট্টলায় ব্রিটিশ পতন আন্দোলনের সূত্রপাত হয়েছে। বীর চট্টলায় স্বাধীনতা সংগ্রামের ৬ দফা উত্তাপন হয়েছে। বীর চট্টলায় মুজিব হত্যার প্রতিশোধ নিতে সশস্ত্র সংগ্রাম হয়েছে।বীর চট্টলায় এরশাদ সরকারের গুলি থেকে আপনাকে বাঁচাতে মানবদেয়াল তৈরী করে ২৪ জন দলীয় নেতাকর্মী শহিদ হয়েছে।বীর চট্টলায় জামাত শিবিরের মৌলবাদী রাজনীতির বিপক্ষে দাঁড়াতে গিয়ে ৩ ডজন নেতাকর্মী প্রান হারিয়েছে।আর এখন বীর চট্টলায় শকুনের চোখ পড়েছে । এভাবে চলতে থাকলে দেশের জন্য, দলের জন্য, আপনার জন্য প্রান দেয়ার লোক খুঁজে পাওয়া যাবে না । মাননীয় নেত্রী ‘উন্মাদকে থামান, জীবন নিয়ে বেঁচে থাকতে দিন’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*