কক্সবাজার জেলার রামু থানাধীন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৭,৪০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ০১ টি ট্রাকসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭

কক্সবাজার জেলার রামু থানাধীন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৭,৪০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ০১ টি ট্রাকসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭

স্টাফ রিপোর্টার,  বর্তমানে আমাদের দেশের যুব সমাজের অধঃপতনের অন্যতম কারণ হচ্ছে মাদকাসক্তি। মাদকাসক্তির ভয়াল থাবা প্রতিনিয়ত আমাদের সমাজকে ধ্বংস করে ফেলছে। দেশব্যাপী মাদকদ্রব্যের বিস্তাররোধ এবং দেশের যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে র‌্যাবের মাদক বিরোধী অভিযান দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণ কর্তৃক বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এ বৎসর ০১ জানুয়ারি ২০১৭ হতে অদ্য ১৩ জুলাই ২০১৮ ইং তারিখ পর্যন্ত সর্বমোট ৪৪৭ টি বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রসহ মোট ৫৫ টি ম্যাগাজিন এবং ৫,৭৫২ রাউন্ড বিভিন্ন ধরনের গুলি/কার্তুজ উদ্ধারের পাশাপাশি ৮৭ লক্ষ ৬১ হাজার ৫০৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৪৮ হাজার ০৫ বোতল ফেন্সিডিল, ৩,৫৮৩ বোতল বিদেশী মদ ও বিয়ার, ০৮ লক্ষ ০৬ হাজার ৯৮৬ লিটার দেশীয় তৈরী মদ, ৯৫৩ কেজি ৮৬৮ গ্রাম গাঁজা, ৪১২ গ্রাম হেরোইন এবং ৭ কেজি ৬৫০ গ্রাম আফিম উদ্ধার করেছে।
র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী টেকনাফ হতে একটি ট্রাকযোগে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে কক্সবাজারের দিকে আসছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে গত ১২ জুলাই ২০১৮ ইং তারিখ ২২৪০ ঘটিকার সময় মেজর মোঃ মেহেদী হাসান এর নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল কক্সবাজার জেলার রামু থানাধীন পূর্ব লুনাছড়ি রাবার বাগান রেষ্ট হাউজ মোড়ে কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়কের উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি করতে থাকে। এ সময় টেকনাফ হতে কক্সবাজারগামী ০১ টি ট্রাকের গতিবিধি সন্দেহজনক হলে র‌্যাব সদস্যরা ট্রাকটিকে থামানোর সংকেত দিলে আসামীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে তৎক্ষনাত ট্রাকটি রাস্তার পাশে থামিয়ে ০২ জন ব্যক্তি ট্রাক থেকে নেমে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী মোঃ ইব্রাহীম (২৫), পিতা- সিদ্দিক আহাম্মদ, গ্রাম- গোয়েলমারা পালংখালী, থানা- উখিয়া, জেলা- কক্সবাজার এবং ২। মোঃ শহিদুল আমিন (২১), পিতা- সিকান্দর, গ্রাম- মচুনিপাড়া, থানা- টেকনাফ, জেলা-কক্সবাজার’দেরকে আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিতি সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে তাদের দেখানো ও সনাক্ত মতে ট্রাকটি (ঢাকা-মেট্রো-ট-১৮-৫৪৩৩) তল্লাশী করে ট্রাকের কেবিনের পিছনে সিলিং এর মধ্যে কাগজ ও কস্টেপ দিয়ে পেছানো অবস্থায় ৫,৪০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয় ও আসামীদের দেহ তল্লাশী করে ২,০০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীদেরকে গ্রেফতার করা হয় এবং উক্ত ট্রাকটি জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটের আনুমানিক মূল্য ৩৭ লক্ষ টাকা এবং জব্দকৃত ট্রাকটির আনুমানিক মূল্য ৫০ লক্ষ টাকা।

গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মালামাল সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে ১৯৯০ সনের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন (সংশোধনী-২০০৪) এর ১৯(১) টেবিল এর ৯(খ)/৩৩(১) ধারা মোতাবেক কক্সবাজার জেলার রামু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*