কাপ্তাই এর নতুন বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে এক ফর্মেসিকে জরিমানা: বন্ধ করে দেয়া হলো ২ ডায়াগনস্টিক সেন্টার, অভিযান টের পেয়ে দোকান বন্ধ করে পালালোও ফার্মেসি মালিকরা

কাপ্তাই এর নতুন বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে এক ফর্মেসিকে জরিমানা: বন্ধ করে দেয়া হলো ২ ডায়াগনস্টিক সেন্টার, অভিযান টের পেয়ে দোকান বন্ধ করে পালালোও ফার্মেসি মালিকরা

ঝুলন দত্ত, কাপ্তাই।।। ৬ ফুট বাই ৮ ফুট একটি কক্ষে ডায়াগনস্টিক সেন্টার। জনবল মাত্র ১ জন। যিনি টেস্ট করান আবার তিনি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সব কাজ নিজে করেন। স্বাস্হ্য অধিদপ্তরের নিয়মনাুযায়ী রির্পোটে কনসালট্যান্ট এর স্বাক্ষর থাকার নিয়ম থাকলেও, কিন্তু এই সব কিছু নেই, নেই কোন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুমোদন, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, আবার রির্পোট এর উল্টা পাশে আছে প্রেসক্রিপশন। এই ভাবে বছরের পর বছর চলছে কাপ্তাই এর ব্যবসার প্রানকেন্দ্র নতুনবাজার এর কাপ্তাই ডায়াগনস্টিক সেন্টার এবং মেডিকম ডায়াগনস্টিক সেন্টার। এই সব অভিযোগে আজ রবিবার সকালে কাপ্তাই নতুনবাজার এ ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে সিলগালা করে দেওয়া হয় এই দুটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার। কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমীন এই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এই সময় কাপ্তাই ফাঁড়ির এস আই খোরশেদ আলম, কাপ্তাই বনিক কল্যান সমিতির সভাপতি সাগর চক্রবর্ত্তী উপস্হিত ছিলেন। এর পর ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালায় নতুনবাজার প্রদীপ সরকারের মালিকানাধীন হক মেডিকেল হলে। অভিযানে ভ্রাম্যমান আদালত হক মেডিকেল হলে দেখতে পান গরু মোটা তাজাকরন ঔষধ,ভারতীয় ঔষধ এবং নিন্ম মানের ঔষধ সামগ্র বিক্রি করছে এই ফার্মেসিটি। তাৎক্ষনিক ভাবে এই ফার্মেসিটিকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা এবং সর্তক করে দেওয়া হয়। এর পর নতুনবাজার শ্যামা ফার্মেসিকে সর্তক করে দেওয়া হয়। এদিকে অভিযানের খবর শুনে নতুনবাজার এর সব ফার্মেসি দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যায়। অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া কাপ্তাই নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমীন জানান, এইভাবে জনগণের অধিকার নিয়ে স্বাস্হ্য খাতে কেউ অনিয়ম করল কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*