চকরিয়ায় বাড়ির সীমানাকে কেন্দ্র করে শিশুসহ একই পরিবারের ৫জনকে কুপিয়ে জখম

চকরিয়ায় বাড়ির সীমানাকে কেন্দ্র করে শিশুসহ একই পরিবারের ৫জনকে কুপিয়ে জখম
মোঃ নাজমুল সাঈদ সোহেল , কক্সবাজারের (চকরিয়া) প্রতিনিধি : কক্সবাজারের চকরিয়ায় বাড়ির সীমানার চলাচল সড়কে বালির দিয়ে মেরামত করাকে কেন্দ্র করে শিশুসহ একই পরিবারের ৬ জনকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে। ২১ মে’১৮ ইং দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মধ্যকৈয়ারবিল গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।
অভিযোগসূত্রে জানাগেছে, মধ্যকৈয়ারবিল গ্রামে হাজী দেলোয়ার হোসেনের পুত্র আবদুল জলিল গং এদিন সকালে বসতভীটার সীমানায় বৃষ্টির পানি নিস্কাশন নিয়ে চলাচল পথে বালির বস্তা দিয়ে মেরামত করছিলেন। ওই সময় পার্শ্ববর্তী বাড়ির আবদুল জলিল গং বাধা সৃষ্টি করে। এক পর্যায়ে আবদুল জলিলের নেতৃত্বে তার ভাই আব্বাস আহমদ, বারেক অাহমদ, আবদুল কাদের, ফিরোজ আহমদ, আবদুর রহিম, মহিলা লাঠিয়াল খদিজা বেগম, হাসিনা বেগম, অারফা বেগম, আছমা বেগম ও ইরানসহ অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জন ধারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় রক্তাক্ত জখম হয়েছে হাজী দেলোয়ারের পুত্র রুহুল কাদের (৪০), তার স্ত্রী হামিদা বেগম (৩৫), নজরুল ইসলামের শিশু কন্যা জান্নাতুল মাওয়া মুক্তা (৫), স্ত্রী তৈয়বা বেগম (২৫), খাইরুল ইসলাম মানিকের স্ত্রী সাদিয়া সোলতানা রোকনা (২২)। এসময় হামলাকারীরা বসতঘরে ঢুকে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। লুট করে নিয়ে ঘরনির্মাণের নগদ সাড়ে ৪ লাখ টাকা, ১২ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার ও ব্যবহৃত ৪টি মোবাইল সেট। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসাকাজে বাধাসহ ফের হামলা চালানো হয়। হামলা বয়োবৃদ্ধ হাজী দেলোয়ার হোসেন (৭৫) আহত হয়েছে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ২জনকে আশংখাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেছে। এনিয়ে মামলার প্রস্তুতি নিয়েছে বলে জানিয়েছেন।
এবিষয়ে চকরিয়া থানার ওসি মোঃ বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানিয়েছেন, ঘটনার বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। তবে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*