টোল আদায়ের নামে চাঁদাবাজি

টোল আদায়ের নামে চাঁদাবাজি

শেখ মানিক, শিবপুর (নরসিংদী) প্রতিনিধি ॥ নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার পৌরসভার নামে জোড়পূর্বক প্রকাশ্যে টোল আদায়ের নামে চাঁদাবাজি চলছে। সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসন নীরব ভুমিকা পালন করছে। এখানে মানা হচ্ছে না ইজারার কোন প্রকারের শর্তাবলী ও নিয়ম-নীতি। শিবপুর পৌরসভার ২০১৭-২০১৮ইং অর্থ বছর বাংলা ১৪২৫ পৌর এলাকায় টোল আদায়ের জন্য বিধি মোতাবেক শহিদুজ্জামান খান প্রায় ৩৭ লক্ষ টাকায় ইজারা গ্রহন করেন। ইজারার শর্ত অনুযায়ী সিএনজি/আটোরিক্সা (তিন চাকা বিশিষ্ট ৫ টাকা) , মিনিবাস (৩০সিট সম্বলিত ১০ টাকা) এবং বড় বাস ট্রাক/ট্রলি/ ট্রাক্টর ২০ টাকা করে আদায়ের করবে এবং কেবল মাত্র পৌর এলাকার যেসব মালবাহী গাড়ী লোড-আনলোড হবে এবং পৌর সভার টার্মিনালে অবস্থান করে সেসব গাড়ী থেকে বিধি মোতাবেক পৌর টোল আদায় করা কথা ।
কিন্তু এখানে ইজারাদার সরকারি নীতি মালাকে বৃদ্ধঙ্গুলি দেখিয়ে শিবপুর বাসস্ট্যান্ড ও বানিয়াদির মোড় থেকে দিন রাত সকল প্রকার গাড়ী থামিয়ে জোর করে ৫,১০,২০ এর স্থলে ১০,৩০ টাকা করে পৌর এলাকার উপর দিয়ে চলমান সকল প্রকার পরিবহন থেকে টোল আদায় করছে। আর যেসব চালকরা তাদের অবৈধ টোল প্রদান করতে অস্বীকৃতি জানায় তাদেরকে লাঞ্চিত করে গাড়ী থামিয়ে রাখার হুমকী ও ভয় ভীতি প্রদান করে।
এ ব্যপারে পৌর ইজারাদার পক্ষের সাদির ভূইয়া সাংবাদিকদের কে জানান, আমারা বহু টাকা দিয়ে ইজারা নিয়াছি। প্রয়োজনে ৫০ টাকা করে টাকা আদায় করব আপনাদের যা ইচ্ছা করেন।
গত বছর ২৯/০৫/২০১৭ইং তারিখে এই ইজারাদারদের বিরুদ্ধে লিখিত ভাবে অভিযোগ করার পরও রহস্যজনক কারনে কোন প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি শিবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পৌর প্রশাসক।
এ ব্যপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পৌর প্রশাসক শীলু রায় এর সাথে মোবাইল ফোনে জানতে চাওয়া হলে তিনি কোন প্রকার মন্তব্য প্রদান করতে অপরাগতা প্রকাশ কারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*