ধর্ষণ মামলা করায়  বিবাদী কর্তৃক ভিকটিমের পরিবার ও সাক্ষীদের হত্যা এবং দেখে নেয়ার হুমকি!! 

ধর্ষণ মামলা করায়  বিবাদী কর্তৃক ভিকটিমের পরিবার ও সাক্ষীদের হত্যা এবং দেখে নেয়ার হুমকি!! 

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ::ধর্ষণে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা করায় বাদী ও সাক্ষীদের হত্যার হুমকি এবংমিথ্যা তথ্য   দিয়ে পু্লিশী  হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সাতক্ষীরা সদরের কাথন্ডা গ্রামের গাইনপাড়ায়। অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে,প্রতিবন্ধী পিতামাতার একমাত্র কন্যার সরলতার সুযোগ নিয়ে ভয়ভীতি ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে  তার কণ্যাকে একই গ্রামের আব্দুল গফফারের ছেলে জিয়ারুল একাধিকবার দৈহিক মেলামেশা (ধর্ষণ) করে।যার ফলে মেয়েটি ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। বিষয়টি স্হানীয় ভাবে মিমাংসার চেষ্টায় ব্যার্থ হয়ে ধর্ষক জিয়ারুল সহ কয়েক জনের নামে  সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।যার মামলা নং-২১,তাং০৮/০৭/১৮ইং ধারা ৩১৩/৫১১/৩০৭/৩৪পিসি।তৎসহ নারী ওশিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০(সংশোধনী /০৩)এর ৯(১) মামলাটি তদন্তাধীন আছে।তবে,এ মামলার প্রধান আসামীকে পু্লিশ  আটক করলেও অন্যান্য বিবাদীদের এখনও আটক করেনি পু্লিশ । বিবাদীদের বিরুদ্ধে ভিকটিমের চাচা বাদী হয়ে মামলা করায় (বিবাদী) ১.নাশিরুল ইসলাম(২২) ২.রেজাউল ইসলাম(৩৫)উভয় পিতা-আব্দুল গফফার ৩.আব্দুল গফফার(৫৫) পিতা-অজ্ঞাত ৪.আনোয়ারা খাতুন(৫২)স্বামী-আব্দুল গফফার ৫.নাছিমা  খাতুন(২৩)স্বামী-রেজাউল ইসলাম সর্ব সাং কাথন্ডা।৬.নুর নাহার (২০)স্বামী- জিয়ারুল ইসলাম ৭. ময়না(১৮) ৮. নুরজাহান(২৬) উভয় পিতা গিয়াস উদ্দীন ৯.হেনা খাতুন(৫০) স্বামী – গিয়াসউদ্দীন,সর্ব সাং মিরগীডাঙ্গা সর্ব থানা জেলা সাতক্ষীরা  উভয় তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ০৬/০৮/১৮ সন্ধ্যায়  তারা মামলা তুলে নেয়ার  জন্য  বাদী ও সাক্ষীগণের  পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে এবং পুলিশের কাছে ভুল তথ্যদিয়ে তাদেরকে হয়রানি করছে । তারা আরো বলে, মামলা তুলে না নিলে পরিনতি ভয়ংকর হবে।এ বিষয়ে ভিকটিমের পরিবার পু্লিশ সুপার  বরাবর অভিযোগ দিয়েছে। ভিকটিমের পরিবার ও স্হানীয় সচেতন এলাকাবাসির দাবি এঘটনায়  দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদান হোক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*