বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন মাহজাবিন খালেদ এমপি

ইসলামপুরে পলিথিনের চালাঘরে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বসবাস
বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন মাহজাবিন খালেদ এমপি
রোকনুজ্জামান সবুজ জামালপুর প্রতিনিধি ঃ ইসলামপুরের মৌজাজাল্লা গ্রামে রাস্তার ধারে ময়লার ভাগারের পাশে অন্যের জমিতে টিনের বেড়ার উপর পলিথিনের চালা ঘর তুলে দীর্ঘদিন যাবত বসবাস করছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম(৮২) ও তার দরিদ্র পরিবার। এখবর জেনে মঙ্গলবার বিকালে ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ঘর তোলার জন্য দুই বান্ডিল ঢেউটিন দিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার প্রয়াত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খালেদ মোশারফের সুযোগ্য কন্যা মাহজাবিন খালেদ বেবী এমপি। এছাড়াও মাহজাবিন খালেদ বেবী এমপি এবং ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে এক খন্ড জমি বরাদ্দ দিয়ে বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।
স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম ৭১’র মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় প্রায় ৯ মাসই যুদ্ধ করেছেন। তিনি নাসির কোম্পানীর অধিনে থেকে পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে জীবন বাজি রেখে কয়েক দফা সম্মুখ যুদ্ধেও অংশ গ্রহণ করেছেন। এজন্য সরকার তাকে মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা প্রদান করছেন। তবে মুক্তিযোদ্ধার সম্মানী ভাতার টাকা দিয়ে তাদের স্বামী-স্ত্রী দু’জনের চিকিৎসা খরচ শেষে পেটের ভাতই জুটেনা। সংসারের অভাব দুর করতে মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলামের স্ত্রী জামরুন নাহার বাড়ি বাড়ি ভিক্ষা করেন। তাদের নিজের কোন জমি জমা না থাকায় মৌজাজাল্লা গ্রামে অন্যের জমিতে টিনের বেড়ার উপর পলিথিনের একটি চালা ঘর তুলে বসবাস করছেন। তাদের এক ছেলে ইমরান ফুটপাতে চা বিক্রি করেন এবং অপর ছেলে আব্দুল জলিল রিক্সা চালিয়ে কোন রকমে নিজেদের জীবন বাঁচান।
মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম আক্ষেপ করে বলেন, “অনেক কষ্ট করে জীবন বাজি রেখে দেশটা স্বাধীন করেছি। কিন্তু দেশটা স্বাধীন করতে পারলেও নিজের কোন জমি জমা না থাকায় একটি বাড়িঘরও নির্মাণ করতে পারিনি। অর্থাভাবে নিজের ঘরে শান্তিতে ঘুমাতেও পারলাম না। তাই অন্তত: মৃত্যুর আগে হলেও স্বাধীন বাংলাদেশের কোথাও একখন্ড জমিতে নিজের ঘরে পেট ভরে ভাত খেয়ে একটু শান্তিতে ঘুমাতে চাই। এজন্য আমি জরুরী ভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি এবং দেশের সরকারী অথবা বেসরকারী প্রতিষ্ঠান এমেনকি বিত্তবানদের সহযোগীতা আশা করছি।
্ইসলামপুরের একজন অসহায় মুক্তিযোদ্ধার কষ্টের এ খবরটি সম্প্রতি জামালপুরের সাংবাদিক ফেইসবুুক আইডি এবং বিভিন্ন গণমাাধ্যম থেকে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে খবরটি মহান মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার প্রয়াত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খালেদ মোশারফের সুযোগ্য কন্যা মাহজাবিন খালেদ বেবী এমপি’র নজরে আসলে তিনি মঙ্গলবার বিকালে ছুটে যান ওই মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে। মাহজাবিন খালেদ বেবী এমপি অসহায় ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারটির খোঁজ খবর নিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ঘর তোলার জন্য দুই বান্ডিল ঢেউটিন প্রদান করেন। এছাড়াও তিনি ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে একখন্ড জমি বরাদ্দ দিয়ে বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এসময় ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমানসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*