ভোগান্তির আরেক নাম অগ্রণী ব্যাংক তামাবিল ব্রাঞ্চ

ভোগান্তির আরেক নাম অগ্রণী ব্যাংক তামাবিল ব্রাঞ্চ

স্টাফ রিপোর্টারঃ বেশ কিছুদিন থেকেই তামাবিলের স্থানীয় লোকজনের মুখে অগ্রণী ব্যাংক তামাবিল ব্রাঞ্চে দুর্ভোগের অভিযোগ শুনা যাচ্ছে।জানা যায় এমন একটি স্থলবন্দর সংলগ্ন ব্যাংকে ব্যবসায়িক প্রয়োজনীয় সকল লেনদেনের ক্ষেত্রে জরুরী মুহুর্তেও ম্যানেজারদের মুখে একটাই বানী শুনতে হয় স্যার,নেটওয়ার্ক নেই,ভীষণ সমস্যা করছে দয়া করে পরে আসুন।এক ভুক্তভোগী জানিয়েছেন পরে আসার কথা বললেও পরে আসলে সেই একই কথা এখনো নেটওয়ার্ক আসেনি অন্য সময় আইসেন।এরকম আরো অনেক গ্রাহকই জানিয়েছেন যে যবে থেকে এই ব্যাংক উদ্ভোদন হয়েছে তবে থেকেই এই এলাকার মানুষ কিছুটা আশ্বাসের চিন্তা করেছিলেন,কিন্ত তার বিপরীত হচ্ছে বর্তমানে।এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে আজ সকাল ১০ ঘটিকায় আমাদের স্টাফ রিপোর্টার রাজু বিশ্বাস দুর্জয় বিদ্যুৎ বিলের জন্য রিচার্জ করতে গেলে কর্মকর্তা উনাকে জানান নেটওয়ার্ক নেই পরে আসুন,তিনি আবার পরবর্তীতে দুপুর ১২ টায় গিয়ে একই কথা শুনে তিনি ম্যানেজার কে প্রশ্ন করে যে আপনার কোন নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেন?উত্তরে জানান গ্রামীনফোন নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেন।সত্যিই গ্রামীণফোন বহুদুর চলে গেছে,তামাবিলে আর আসবে কি না জানিনা,তবে গ্রাহক ভোগান্তি র জন্য মুলত গ্রামীণফোন ই দায়ি বলে জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*