মীরসরাইয়ে তেলবাহী ট্রাক থেকে অবৈধভাবে তেল বিক্রির অপরাধে চোর চক্রের ৩সদস্য গ্রেফতার

মীরসরাইয়ে তেলবাহী ট্রাক থেকে অবৈধভাবে তেল বিক্রির অপরাধে চোর চক্রের ৩সদস্য গ্রেফতার

এস এম জাকারিয়া (মীরসরাই, চট্টগ্রাম) ;; চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে তেলবাহী ট্রাক থেকে চুরি করে তেল বিক্রি করার অপরাধে ঘটনাস্থল থেকে ২টি ট্রাকসহ (তেলের ড্রাম বোঝাই) তেল চোর চক্রের ৩সদস্য (ট্রাকের ২ চালক ও ১ সহকারীকে) হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়েছে। ২২মে ২০১৮ (মঙ্গলবার) মীরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম নিজে ঘটনাস্থলে থেকে অপরাধীদের আটকের পর জোরারগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছেন। আটককৃত ৩ চোরাই চক্রের সদস্য হচ্ছে তাজুল ইসলাম (২৩), মঈন উদ্দিন (২৫) ও জহিরুল ইসলাম (২৪)। এসময় তিনি তেলবাহী ট্রাক দুটিকে থানা হেফাজতে দিয়ে চোরাই তেলের দোকানটিকে তালাবদ্ধ করে দেন। মঙ্গলবার দুপুর ২:৩০ ঘটিকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে চিনকি আস্তানা রেল স্টেশন বাজার এলাকায় এই আটকের ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ ও ইউএনও এর উপস্থিতি টের পেয়ে দোকান মালিক দুলাল ও তার দুই সহকারী পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন ও পুলিশের সাথে কথা বলে জানা যায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পার্শ্বে চিনকি আস্তানা বাজারে দীর্ঘকাল যাবৎ অনুমোদনহীন দোকান খুলে চোরাই তেলের ব্যবসা করে আসছে চিনকি আস্তানা এলাকার বাসিন্দা দুলাল নামের এক ব্যক্তি। বাজারের উপর তার দদ্বীতল বাড়ি রয়েছ। এই অবৈধ তেলের দোকানে ঢাকা – চট্টগ্রাম রুটের দুর পাল্লার তেলবাহী ট্রাক থেকে চালক ও তাদের সহকারীরা মালিকের অগোচরে তেল বিক্রি করে দেয়। যার কারণে সম্পূর্ণ অজ্ঞাত কারণে ব্যাপক লোকশানে পড়ে এসব গাড়ি দিয়ে তেল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে। এই বিষয়ে অভিযান পরিচালনাকারী মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল এই প্রতিবেদককে বলেন, আমি সরকারী এক উর্দ্ধতন কর্মকর্তাকে প্রটোকল দিয়ে ফেরার পথে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চিনকি আস্তানা এলাকায় এই ঘটনা আমার চোখে পড়ে। এসময় আমি দ্রুত গিয়ে চুরি করে তেল বিক্রির সাথে জড়িতদের আটকের নির্দেশ দেই এবং অবৈধ ওই চোরাই তেলের দোকানটিকে তাৎক্ষনিক তালাবদ্ধ করে দেই। এসময় চালক ও সহকারী ৩জনকে আটক করা গেলেও দোকান মালিক ও তার সহকারীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। আটককৃত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবে এবং পলাতকদের গ্রেফতারের ব্যবস্থা করবে। এই ব্যাপারে জোরার গঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহেদুল কবিরের সাথে কথা বলে জানা যায় চুরি করে তেলবাহী যে ট্রাক থেকে তেল বিক্রি করা হচ্ছিলো সেই ট্রাক ও তেলের প্রকৃত মালিকদের জানানো হয়েছে। এখন ঐ মালিকরা যদি আটককৃত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা করে তখন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। যারা অভিযানের সময় পালিয়ে গেছে তাদেরও গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*