মানসম্মত শিক্ষাউন্নয়ন সরকার বদ্ধপরিকর

মানসম্মত শিক্ষাউন্নয়ন সরকার বদ্ধপরিকর:উখিয়ায় মাউশ শি: অধি: পরিচালক শ.ম.গফুর,উখিয়া(কক্সবাজার)প্রতিনিধি ::  মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক ড. ছৈয়দ মোহাম্মদ গোলাম ফারুক বলেছেন সংস্কৃতি বান্ধব সরকার প্রধান, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তৃতীয় বারেরমত নিরস্কুৃশ বিজয়ের মাধ্যমে আবারো রাষ্ট্র ক্ষমতায় অধিষ্টিত হওয়ায় মানসম্মত শিক্ষার উন্নয়নের মহান উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। জেলা উপজেলা পর্যায়ে মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্টান গুলোতে সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে আনন্দঘন পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষে গান, নৃত্য ব্যাটমিন্টনসহ বিভিন্ন প্রকার খেলাধুলার আয়োজন করায় উখিয়ার শিক্ষাঙ্গন গুলোতে বিরাজ করছে উৎসব মূখর পরিবেশ।
শনিবার সকাল ১০টায় উখিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে আন্তশেনী ব্যাটমিন্টন প্রতিযোগিতা উদ্ধোধনকালে তিনি ছাত্রীদের ক্রীড়া নৈপুন্য উপভোগ করে আনন্দে অভিভুত হন। এসময় তিনি ছাত্রীদের উদ্দ্যেশ্যে বলেন, খেলাধুলা ও সংস্কৃতি,পড়ালেখার মান উন্নয়নে অগ্রনী ভুমিকা পালন করে। তাই ছাত্রীদের ইচ্ছামত পড়া লেখার পাশাপাশি সংস্কৃতি চর্চায় মনোনিবেশ করার আহবান জানান। উখিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রোকেয়া খানমের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত ক্রীড়া অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার সংস্কৃতি বান্ধব সরকার। তিনি মনে করেন, ছেলে মেয়েদের সংস্কৃতি চর্চায় পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া হলে শিক্ষা দ্বীক্ষায় দেশ আরো এগিয়ে যাবে। তিনি শিক্ষকদের বলেন, বার্ষিক পরিক্ষায় দৃশ্যমান কৃতকার্য হলেও সংস্কৃতি চর্চাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। ছাত্রীরা যাতে তাদের মনখোলা অন্তরে ইচ্ছামত খেলাধুলা, সংস্কৃতি চর্চা, নৃত্যসহ বহুমুখি প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে পারে। অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষা অধিদপ্তরের চট্রগ্রামস্থ আঞ্চলিক পরিচালক প্রদীপ চক্রবর্তী, আঞ্চলিক উপ-পরিচালক মোঃ আজিজ উদ্দিন, জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ সালেহ উদ্দিন চৌধুরী, কক্সবাজার সদরের মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ সেলিম উদ্দিন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ রায়হানুল ইসলাম মিয়া। উখিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সরওয়ার আলম শাহিন। পরে প্রধান অতিথি শিক্ষাঙ্গনে বনজ ও ফলজ গাছ রুপন করে প্রকৃতিক পরিবেশের প্রতিষ্টান গড়ে তোলার প্রতি আগ্রহ সৃষ্টির লক্ষে শিক্ষকদের তাগিদ দেওয়ার জন্য ও ছাত্রীদের উদ্ধুদ্ধ করার নির্দেশ দেন। প্রধান অতিথি কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয় ও রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করার কথা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*