উখিয়ায় খাদ্য সরবরাহ বন্ধ:২০ হাজার রোহিঙ্গা বিপাকে

উখিয়ায় খাদ্য সরবরাহ বন্ধ:২০ হাজার রোহিঙ্গা বিপাকে
নিজস্ব প্রতিবেদক:উখিয়া,কক্সবাজার :: কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হঠাৎ করে খাদ্য সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পূর্ব ঘোষণা ছাড়া তুরস্কভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘টিকা’ তাদের খাবার সরবরাহ বন্ধ রাখায় রোহিঙ্গারা চরম সংকটে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। সেই সাথে স্থানীয় সুবিধাভোগি এতিম, অসহায় লোকজনও বঞ্চিত হচ্ছে। চাকুরী হারানোর পথে ওই কাজে নিয়োজিত ২শতাধিক কর্মচারী। খাবার পুণঃসরবরাহ করার দাবী জানিয়ে বাংলাদেশস্থ তুরস্ক এম্বাসিকে স্মারকলিপি দিয়েছে রোহিঙ্গারা।
সংশ্লিষ্ট সুত্র জানিয়েছে, ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকে উখিয়ার ক্যাম্প-১৬, কচুবনিয়া এলাকায় ১৫ হাজার রোহিঙ্গা ও ৫ হাজার স্থানীয় বাসিন্দাসহ ২০ হাজার লোককে নিয়মিত খাবার সরবরাহ করতো ‘টিকা’ নামের তুরস্কভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবী একটি প্রতিষ্ঠান। আর এই খাবার সরবরাহ কাজে নিয়োজিত ছিল ২০০ কর্মচারী। প্রতিষ্ঠানটি অজানা কারণে গেল ৮ জানুয়ারী থেকে খাবার সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। তাতে খাবার নিতে এসে ফেরত যাচ্ছে রোহিঙ্গা ও স্থানীয় এতিম, অসহায় মানুষজন। দীর্ঘদিন সুবিধা পাওয়া লোকগুলো মারাত্নক খাবার সঙ্কটে পড়ার আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা।
ক্যাম্প-১৬ এর মূল মাঝি মো. সেলিম জানান, তাদের সাথে কোন আলাপ, পরামর্শ না করেই কক্সবাজার শরণার্থী বিষয়ক কর্মকর্তা নিয়মিত খাবার সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। তাতে তারা খাবার সঙ্কটে পড়েছে।মাঝি আবু তাহের জানান, প্রায় ১ বছর ধরে তুরস্কভিত্তিক সংস্থার পক্ষ থেকে তাদের ‘তৈরী খাবার’ সরবরাহ করা হতো। হঠাৎ খাবার না পেয়ে তাদের ফেরত যেতে হচ্ছে। খাবার সঙ্কটে পড়ে স্থানীয় প্রশাসন ও রোহিঙ্গাদের মাঝে স্নায়ুযুদ্ধ শুরু হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে কক্সবাজার শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. আবুল কালাম জানান, প্রচুর শুকনো খাবার রোহিঙ্গাদের ঘরে ঘরে দেওয়া হচ্ছে। এই মুহুর্তে রান্না করা খাবার এখন আর দরকার নেই। তাই সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*