দেওয়ানগঞ্জে ইজিবাইক চালকদের লাগাম ধরবে কে? ১২ বছর বয়সী বালকদের হাতে ইজিবাইক

দেওয়ানগঞ্জে ইজিবাইক চালকদের লাগাম ধরবে কে? ১২ বছর বয়সী বালকদের হাতে ইজিবাইক

ফারুক মিয়া , জামালপুর প্রতিনিধিঃ ইজিবাইক চালকদের লাগাম ধরবে কে? প্রশ্নটি জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চলাচল করা প্রায় সকল মানুষের। ড্রাইভিং জ্ঞানহীন চালকরা আতংকের কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে দেওয়ানগঞ্জ বাসির কাছে। ইজিবাইকের লাগামহীন দুর্ঘটনার খবর যেনেও প্রশাসন নি:শ্চুপ অনেক সময় দেখা যায় ইজিবাইকে উরুনা পেচিয়ে মৃত্যু হচ্ছে অনেক মহিলার কেউ হারাচ্ছে মা,কেউবা হারাচ্ছে স্ত্রী কেউবা হারাচ্ছে সন্তান দূর্ঘটনার বালাই নেই । দেওয়ানগঞ্জ বাসি আক্রান্তের শিকার হলেও বিষয়টি নিয়ে মাথা ব্যথা নেই কেউরই। ইজিবাইক চালু হওয়ার পর এলাকা বা সহরে পরিবহন খরচ কমেছে। সস্তায় একস্থান থেকে অন্যস্থানে যাতায়াত করতে পারছে। জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ইজিবাইক নামক পরিবহনটি। গরিবের পরিবহন হিসেবে এলাকা বাসীর মনে স্থান করে নিয়েছে। সেই সাথে সৃষ্টি হয়েছে বাড়তি কর্মসংস্থানের। তবে দক্ষ চালক সংকেটে ভুগছে জনপ্রিয় এই পরিবহন সেক্টর। হাল ছেড়ে, জাল ছেড়ে ছাড়াও কর্মহীন একদল মানুষ অটোবাইক চালনায় হুমড়ি খেয়ে পড়ছে। সেটাও স্বাভাবিক, বেকার সমস্যা ও আয়ের পথটি সহজ হওয়ায়, এখন অটোবাইক চালক অনায়েসে ৪ থেকে ৫শ টাকা আয় করতে পারে। হুমড়ি খেয়ে পড়ার এটাই মুলত কারন। তবে ইজিবাইকের ড্রাইভিং সিটে বসার আগে দক্ষ করে গড়ে তুলার যাদের দ্বায়িত্ব তারা কি পালন করছে। লাইসেন্স দেয়ার আগে পৌর কর্তৃপক্ষ একবারও কি খতিয়ে দেখেছেন, যাকে লাইসেন্স দেয়া হচ্ছে অটোবাইক চালানো জানে কিনা? সড়ক পরিবহনে আইন কানুন জানে? প্রাপ্ত বয়স হয়েছে,পৌরসভায় ঠিকানায় কারসাজি হয়েছে কিনা। এসব অদক্ষ অটো বাইক চালকরা জানেনা বাম ডান,সিগন্যাল না দিয়েই যত্র তত্র যাত্রী উঠা নামা করতে গিয়ে পেছনে থাকা অন্য আটোর ধাক্কায় ঘটছে দুর্ঘটনা। আহত হচ্ছে যাত্রী। সড়কের মোড় অতিক্রমের সময় স্প্রিড কত কিলোমিটার থাকার নিয়ম তাও জানেনা। দ্রুত মোড় পার হতে গিয়ে বিপরীত দিক থেকে আসা পরিবহনের সাথে টক্কর। এমন ঘটনা প্রতিদিন দেওয়ানগঞ্জ এলাকায় একাধিক স্থানে ঘটছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*