নিয়মিত সেচ্ছায় রক্তদান করলে উপকারিতা

নিয়মিত সেচ্ছায় রক্তদান করলে উপকারিতা
-মোঃ মহসিন হোসাইন
কখনও কি ভেবে দেখেছেন, আপনার দান করা একব্যাগ (৩৩০মিলি) রক্ত একটা মানুষের জীবন রক্ষা করতে পারে! বর্তমানে প্রতি বছর ৪ লাখ ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন।এই রক্তের বড় অংশই আসে পেশাদার রক্ত বিক্রেতার কাছ থেকে। পেশাদার বিক্রেতা অনেকেই নেশা কিংবা রোগে আক্রান্ত। মানুষ নিরুপায় হয়ে এই দূষিত রক্ত গ্রহণ করে জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।
সুতরাং বুঝতেই পারছেন কেনা রক্ত কোনও ভাবেই নিরাপদ নয়। তাই আপনি যদি নীরোগ ও সুস্থ হয়ে থাকেন, তাহলে অবশ্যই আপন,পরিচিত / অপরিচিতদের প্রয়োজনে বিনামূল্যে রক্তদানে এগিয়ে আসুন।রক্তদানের উপকারিতাঃ-
১. রক্তদানের সঙ্গে সঙ্গে আপনার শরীরের মধ্যে অবস্থিত ‘বোন ম্যারো’ নতুন কণিকা তৈরি হয়। রক্তদানের ২ সপ্তাহের মধ্যে নতুন রক্তকণিকা জন্ম হয়ে ঘাটতি পূরণ হয়ে যায়। আর বছরে ৩ বার রক্তদানে লোহিত কণিকাগুলোর প্রাণবন্ততা বাড়িয়ে দেয় ও নতুন কণিকা তৈরির হার বাড়িয়ে দেয়।
২. নিয়মিত রক্তদানকারীর হৃদরোগ ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি অনেকটাই কম এবং বিভিন্ন জটিল রোগ-ব্যাধি থেকে মুক্ত থাকেন অনেকাংশে। নিয়মিত রক্তদান ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়ক।
৩. রক্তদানে বিনামূল্যে জানা যায় নিজের শরীরে জটিল কোনো রোগ আছে কিনা।যেমন : হেপাটাইটিস-বি, হেপাটাইটিস-সি, সিফিলিস, এইচআইভি (এইডস) ইত্যাদি।
৫. নিয়মিত রক্তদানে কোলেস্টোলের উপস্থিতি কমাতে সাহায্য করে । শরীরের অতিরিক্ত আয়রন (Hemochromatosis) কে প্রতিরোধ করে।স্থূল দেহী মানুষদের ওজন কমাতে অত্যান্ত সহায়ক ভূমিকা পালন করে ।
৬. মুমূর্ষু মানুষকে রক্তদান করে আপনি পাচ্ছেন মানসিক তৃপ্তি। কারণ, এত বড় দান যা আর কোনোভাবেই সম্ভব নয়।
৭. রক্তদান ধর্মীয় দৃষ্টিতে অত্যন্ত সওয়াবের কাজ। একজন মানুষের জীবন বাঁচানো সমগ্র মানব জাতির জীবন বাঁচানোর মতো মহান কাজ।
৮. রক্তদানের মাধ্যমে পাঁচটি পরীক্ষা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করা হয় যা বাইরে করলে প্রায় তিন হাজার টাকা খরচ হয়। সেগুলো হলো-এইচআইভি/এইডস, হেপাটাইটিস-বি, হেপাটাইটিস-সি, ম্যালেরিয়া ও সিফিলিস। তাছাড়া রক্তের গ্রুপও নির্ণয় করা হয়।
তাই আসুন আমরা এক সাথে হাতে হাত দিয়ে বিনামূল্যে রক্তদানে এগিয়ে আসি এবং “মানবতার ডাক সামাজিক সংগঠন” এর সাথে যুক্ত হয়ে সমগ্র বাংলাদেশে রক্তদান সহ অন্যান্য সামাজিক কর্মকান্ডে নিজেকে এক ধাপ এগিয়ে নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*