কটিয়াদী উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুজ্জামান জামান জনপ্রিয়তার শীর্ষে

কটিয়াদী উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুজ্জামান জামান জনপ্রিয়তার শীর্ষে

মাসুদুর রহমান-কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রাথী হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে মোঃ কামরুজ্জামান (জামান) । উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে উপজেলা,পৌর,ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ,ছাত্রলীগ ও যুবলীগ সহ অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী দের মাঝে সহ স্থানীয় ভোটারদের মধ্যে নির্বাচনের হাওয়া বইতে শুরু করেছে। তাদের সমর্থন অর্জন করে, সর্বত্র উপজেলা জুড়ে, আলোচনার শিষ্যে অবস্থান করছেন তিনি। তার চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে তৃনমূল ব্যাপক সারা জাগিয়েছে। ব্যাক্তিগত ইমেজ ভোটারদের মাঝে তুলে ধরে ব্যস্থ সময় ও সকলের নিকট আশির্বাদ প্রার্থনা করছেন কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ কামরুজ্জামান (জামান) । ফলে চা- আড্ডা থেকে শুরু করে পাড়া- মহল্লা সব জায় তার জন প্রিয়তা তুঙ্গে। ২০১৯ সালের পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হিসেবে ইতিমধ্যেই বেশ কয়েক জনের নাম শুনা গেলেও, তৃনমূলে জামানের নাম সুপষ্ট হয়ে উঠেছে। ইতিমধ্যে তৃৃণমূলের নেতাকর্মীরা কামরুজ্জামানের সমর্থনে নির্বাচনী এলাকায় পোষ্টার, ব্যানার, ফেষ্টুন, উঠান বৈঠক, সভা-সেমিনারসহ বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড ও দলীয় ব্যানারে কাজ করছেন । স্থানীয় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাএলীগ নেতাকর্মিরা জামানের পক্ষে সালাম জানিয়ে আগামী উপজেলা নির্বাচনের জন্য নৌকা মার্কায় ভোট চাচ্ছেন তৃৃণমূলের নেতাকর্মীরা। রাজনৈতিক ও সামাজিক জীবনের অধিকারী মোঃ কামরুজ্জামান (জামান) কিশোরগন্জ জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য । রাজনৈতিক নেতা হিসেবে রয়েছেন সর্বজন স্বীকৃত। তৃণমূল থেকে ওঠে আসা এই রাজনীতিকের সামাজিক-সাংস্কৃতিক পরিমুলে রয়েছে সরব পদচারণা। একজন সদালাপি ও স্পষ্টভাষী মানুষ হিসেবেও তাঁর ব্যাপক পরিচিতি ও সুনাম রয়েছে। আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব ও গণমুখী চরিত্রের কারণে কটিয়াদী উপজেলার আপামর জনসাধারণের কাছে তিনি এক জনপ্রিয় ও প্রিয়মুখ। বিগত জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তিনি স্থানীয় উন্নয়ন কর্মকান্ড ও জনসাধারণের কল্যাণে আন্তরিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি এ উপজেলার বেশিরভাগ মানুষের খোজখবর রাখেন নিয়মিত। এর ফলে উপজেলার সবগুলি ইউনিয়নেও রয়েছে তার ব্যাপক পরিচিতি। তিনি বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ এবং বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনসহ সামাজিক ও উন্নয়নমূলক কাজের সাথে জড়িত রয়েছেন।সব সময় সরকারের উন্নয়নের চিত্র জনগনের নিকট তুলে ধরেন। নেতাকর্মীরা জানান, জামান একজন কঠোর পরিশ্রমী ও মেধাবী এবং ত্যাগী নেতা। দল পরিচালনার ক্ষেত্রে এমন ত্যাগী নেতার গুরুত্ব অনেক বেশি। এবার যেহেতু সুযোগ আছে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হওয়ার, তাই আমরা তৃণমূলের নেতাকর্মীরা মনে করি দল তাকেই মনোনয়ন দিবে। আমরা জামানকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করবো। কামরুজ্জামান রাজধানীর তেজগাঁও বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক আহব্বায়ক । দীর্ঘদিন ধরে উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুব লীগ, ছাএলীগ নেতা কর্মীরা সু- সসংগঠিত করে দলের কার্যক্রমে চালিয়ে দলকে ঐক্যবদ্ধ রেখে আ’লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার আনুগত্যতা পোষণ করে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। তাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জামান ভাইকে আমরা উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চাই। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কটিয়াদী উপজেলাকে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে হলে জামান যোগ্য প্রার্থী। জামান ভাইকে নৌকা প্রতীকে মনোনীত হলেই এ উপজেলা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দেওয়া সম্ভব ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*