প্রথমবারের মতো সাংসদ হতে যাচ্ছেন খাদিজাতুল আনোয়ার সনি!

প্রথমবারের মতো সাংসদ হতে যাচ্ছেন খাদিজাতুল আনোয়ার সনি!
ফটিকছড়ি প্রতিনিধি :: চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও ফটিকছড়ির সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব রফিকুল আনোয়ারে কন্যা খাদিজাতুল আনোয়ার সনি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সংরক্ষিত মহিলা আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।
৮ ফেব্রুয়ারী গণভবনে আওয়ামীলীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে দলের সংসদীয় বোর্ড ও স্থাণীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের যৌথ সভা শেষে আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সংরক্ষিত মহিলা আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেন। ঘোষণাকৃত ৪১ জন মনোনয়নপ্রাপ্তদের মধ্যে খাদিজাতুল আনোয়ারের নামও ঘোষণা করেন তিনি।
এদিকে খাদিজাতুল আনোয়ারের নাম ঘোষণায় আনন্দ উচ্ছাসে মেতে উঠে ফটিকছড়িবাসী। তাঁর প্রতি বিভিন্ন সংগঠন ও বিশিষ্ট ব্যক্তি বর্গের ফুলেল শুভেচ্ছ ও অভিনন্দন অব্যাহত রয়েছে।
ফটিকছড়ি থেকে দুবার নির্বাচিত সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব রফিকুল আনোয়ারের মৃত্যুর পর রাজনীতিতে সক্রিয় হন খাদিজাতুল আনোয়ার সনি। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামীলীগের মনোনয়নও পান। কিন্তিু জোটগত কারনে তাঁর মনোনয়ন প্রত্যাহার করে আলহাজ্ব নজিবুল বশর মাইজভা-ারীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও আলোচনায় ছিলেন তিনি। এবং জোটগত কারনে মনোনয়ন পান আলহাজ্ব নজিবুল বশর মাইজভা-ারী। তবে তখন থেকেই ফটিকছি তে জল্পনা কল্পানা আলোচনা হতে থাকে খাদিজাতুল আনোয়ার সনি সংরক্ষিত মহিলা আসনে এমপি হবেন। অবশেষ সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেয়ে প্রথমবারের মতো সাংসদ হতে যাচ্ছেন খাদিজাতুল আনোয়ার সনি।
এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিন মুহুরী বলেন,একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমাদের দাবী ছিল দলীয় প্রার্থী। কিন্তু জোটগত কারেনে আমরা তা পাইনি। তবে মাননীয় প্রদানমšী¿ তা মনে রেখেছেন। আমাদের দাবীর প্রেক্ষিতে এবং আলহাজ্ব রফিকুল আনোয়ারের সম্মানার্থে খাদিজাতুল আনোয়ার সনিকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞ।
চট্টগ্রাম উত্তরজেলা আওয়ামীলগের সদস্য সৈয়দ মোহাম্মদ বাকের বলেন,সাবেক সাংদদ মরহুম রফিকুল আনোয়ারের ইচ্ছে ছিল তাঁর একমাত্র মেয়ে খাদিজাতুল আনোয়ার সনি রাজনীতিতে আসুক। পিতার সে ইচ্ছার খাজিাতুল আনোয়ার রাজনীতিতে এসেছেন। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নও পেয়েছেন। কিন্তু জোটগত কারনে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশের প্রতি সম্মান দেখিয়ে তিসি সরে দাঁড়ান। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে তিনি সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী হন। অবশেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তার প্রাপ্য তাকে দিয়েছেন। আমি আশা করি খাদিজাতুল আনোয়র সনি এমপি নির্বাচিত হয়ে তাঁর পিতার অসামাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করবেন।
খাদিজাতুল আনোয়ার সনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন,আমার আব্বু আওয়ামীলীগের একজন ত্যাগী নেতা ছিলেন,তাঁর সে ত্যাগেরে সম্মনার্থে মাননীয় প্রধানমন্ত্র আমাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আমার আব্বু ফটিকছড়ির দু বারের নির্বাচিত সাংসদ ছিলেন। তিনি ফটিকছড়ির মাঠি ও মানুষের বন্ধু ছিলেন। ফটিকছড়ি নিয়ে তিনি অনেক স্বপ্ন দেখতেন। আমি আমার আব্বুর সে স্বপ্ন পূরণে কাজ করব।
আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারী সংরক্ষিত মহিলা আসনের নির্বাচনী তফশীল ঘোষণা করা হবে বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*