হবিগঞ্জ শহর সংলগ্ন খোয়াই নদীর উপর দু’টি ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ

হবিগঞ্জ শহর সংলগ্ন খোয়াই নদীর উপর দু’টি ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ

সুশীল চন্দ্র দাস , হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি::  হবিগঞ্জ শহর সংলগ্ন খোয়াই নদীর উপর নির্মিত দু’টি গুরুত্বপূর্ন বেইলি ব্রীজ মারাত্বক ভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়তে পারে ব্রীজ দু’টি। ঘটতে পারে বড় ধরনের কোন দূর্ঘটনা, হতে পারে অনাকাংঙ্খিত প্রাণহানী। এমন আশংষ্কা নিয়েই ব্রীজ দু’টির উপর দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করছেন হাজার-হাজার মানুষ।জানা যায়, হবিগঞ্জ শহরের চৌধুরী বাজার এলাকায় খোয়াই নদীর উপর পাশা-পাশি দু’টি বেইলী ব্রীজ রয়েছে। এদের একটির নাম ‘কিবরিয়া ব্রীজ’ আর অপরটির নাম ‘উমদা মিয়া ব্রীজ’। স্থানীয় চালক-যাত্রী, পথচারী ও ব্যবসায়ীরা জানান, ব্রীজ দু’টির কয়েকটি পিলার ভেঙ্গে গেছে, উঠে গেছে কয়েকটি ‘স্ল্যাব’। এ অবস্থায় ব্রীজ গুলো দীর্ঘদিন ধরে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে যান চলাচলের অনুপোযুগী হয়ে পড়েছে। সড়ক বিভাগ ব্রীজের পাশে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ সাইনবোর্ড লাগালেও বিকল্প কোন ব্যবস্থা না থাকায় বাধ্য হয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই প্রতিদিন যাতায়াত করে শত-শত যাত্রী ও মালবাহী যানবাহন। শুধু তাই নয়, ব্রীজের উপর দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করেন ব্যবসায়ী, চাকুরীজীবি, স্কুল- কলেজের শিক্ষার্থীসহ হাজার-হাজার পথচারী। এ বিষয়ে স্থানীয় সিএনজি চালক রমজান মিয়া জানান, প্রতিদিন ব্রীজের উপর দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হয়। তিনি জানান, খোয়াই নদীর পানি বাড়লে ব্রীজ নড়া-চড়া করে। ব্রীজ গুলো যে কোন সময় ভেঙ্গে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। ট্রাক চালক আরজু মিয়া জানান, ব্রীজের উপর দিয়ে ট্রাক চলাচল করার সময় মনে হয় ভেঙ্গে পড়ে যাচ্ছে। যে কোন সময় ব্রীজ ভেঙ্গে মানুষের প্রাণহানীসহ বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই শীঘ্রই ব্রীজটি সংষ্কার অথবা নতুন ব্রীজ নির্মাণ করা জরুরী। স্থানীয় সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি তারেশ চৌধুরী জানান, প্রতিদিন ব্রীজ দিয়ে শত-শত যানবাহন চলাচল করে। প্রতিটি গাড়িই অত্যান্ত ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হয়। এতে করে যাত্রীরা চরম ঝুঁকির মধ্যে থাকেন। তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে ব্রীজ দু’টি সংস্কারের জন্য স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। স্কুল শিক্ষিকা সালমা জানান, ব্রীজ দু’টির মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও সংষ্কারের উদ্যোগ গ্রহন করা হয়নি। তাই প্রতিদিন ঝুঁকির মধ্যে পারাপার হতে হয়। তিনি জানান, যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। জানতে চাইলে হবিগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম বলেন, ‘দু’টি ব্রীজ নতুন করে কংক্রিট দিয়ে তৈরীর জন্য আমরা একটি প্রকল্প গ্রহন করেছি। আশাকরি প্রকল্পটি পাশ হলেই ব্রীজ গুলো নির্মান করা হবে’। তিনি বলেন, ‘আপাতত সংস্কারের ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*