কক্সবাজারে আওয়ামীলীগের ভরাডুবি ৫ টি উপজেলার মধ্যে ৪ টিতে বিদ্রোহ প্রার্থীর জয়লাভ

কক্সবাজারে আওয়ামীলীগের ভরাডুবি ৫ টি উপজেলার মধ্যে ৪ টিতে বিদ্রোহ প্রার্থীর জয়লাভ

আবদুর রাজ্জাক,বিশেষ প্রতিনিধি।। পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপের আওতায় উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে পর্যটন নগরী কক্সবাজারে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ প্রার্থীদৈর ভরাডুবি হয়েছে। জেলার ০৫ টি উপজেলার মধ্যে ০৪ টি উপজেলাতে বিদ্রোহী প্রার্থীর নিকট ধরাশয়ী হয়েছেন আওয়ামীলীগ তথা নৌকা প্রতিকের প্রার্থীরা। জানা যায়,গত রোববার (২৪ মার্চ) অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে জেলার ৫ টি উপজেলায় নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। অনুষ্ঠিত নির্বাচনের ৪টিতেই সংগঠনের বিদ্রোহী প্রার্থীদের কাছে ধরাশায়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা। উখিয়া উপজেলা পরিষদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী এবং সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থিনী কামরুন নেছা চৌধুরী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় গতকাল ২৪ মার্চ উপজেলাটিতে শুধু ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। টেকনাফ উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যাপক মোঃ আলীকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নুরুল আলম।মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে নুরুল আলম পেয়েছেন ৩৬ হাজার ১৫১ ভোট। তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অধ্যাপক মোঃ আলীর প্রাপ্ত ভোট ২৩ হাজার ৪৭৬। উপজেলাটির বর্তমান চেয়ারম্যান জাফর আহমদ আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ১৩ হাজার ৫৫৭ ভোট। পেকুয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল কাশেমকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সংগঠনটির বিদ্রোহী প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম। বিজয়ী পেকুয়া উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম পেয়েছেন ১৭ হাজার ২২৫ ভোট। নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম পেয়েছেন ১৫ হাজার ২৬৯ ভোট। রামু উপজেলা পরিষদের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রিয়াজুল আলমকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সোহেল সরওয়ার কাজল। বিদ্রোহী প্রার্থী ও রামু উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সোহেল সরওয়ার কাজল আনারস প্রতীকে ৩১ হাজার ৩২৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রিয়াজুল আলম পেয়েছেন ২৯ হাজার ৬৮০ ভোট। মহেশখালী উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ হোছাইন ইব্রাহিমকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী মোঃ শরীফ বাদশা। বিজয়ী মোঃ শরীফ বাদশা আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৩২ হাজার ৫৩৮ ভোট। তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোহাম্মদ হোছাইন ইব্রাহিম পেয়েছেন ২৬ হাজার ৭৩৩ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে রামু উপজেলায় সালাহউদ্দিন, পেকুয়ায় আজিজুল হক আজু, মহেশখালীতে জহির উদ্দিন, উখিয়ায় জাহাঙ্গীর আলম এবং টেকনাফে মৌলানা ফেরদৌস আহমদ জমিরী নির্বাচিত হয়েছেন। সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থিনীদের মধ্যে রামু উপজেলায় আফসানা জেসমিন পপি, মহেশখালীতে মিনুয়ারা ছৈয়দ, পেকুয়ায় উম্মে কুলসুম মিনু এবং টেকনাফে তাহেরা আক্তার মিলি নির্বাচিত হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*