তিন দিনের সরকারি ছুটিতে জাফলংয়ে জমে উঠবে পর্যটকদের মিলনমেলা

তিন দিনের সরকারি ছুটিতে জাফলংয়ে জমে উঠবে পর্যটকদের মিলনমেলা

রাজু বিশ্বাস দুর্জয়ঃ পহেলা বৈশাখ বাঙালি জাতির গৌরবের ও গর্বের।বাংলার এই বর্ষবরণ এখন শুধু ইলিশ – আর পান্তাতেই সীমিত নয়।কারন, সরকারি -বেসরকারি সকলেই কর্মব্যস্ত জীবনে মুক্ত হাওয়ার স্বাদ গ্রহনের সুযোগ খুব কম ই পেয়ে থাকেন।কিন্তু এবারের পহেলা বৈশাখ জমবে অন্য রকম এক অনুভুতি নিয়ে।১২ ও ১৩ তারিখ শুক্র-শনি সরকারি ছুটির দিন,আর ১৪ ই এপ্রিল ত বাঙালি জাতির নববর্ষের দিন।বর্ষবরণ করতে সরকারি আরেক দিনের ছুটি।সব মিলিয়ে মোট ৩ দিন হল।যারা চাকরিজীবী তারা প্রায় সিলেক্ট করেই রেখেছেন নব বর্ষের সকালে ইলিশ -পান্তা সেরে কে কোথায় যাবেন।প্রকৃতিকণ্যা জাফলং নামটি ভ্রমনপিপাসু প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষ খুব ভাল করে চিনেন।কারন, মেঘালয়ের জৈন্তিয়া রাজ্যের খসিয়া পাহাড় জৈন্তিয়াহিলস পাহাড় সুদুর উচ্চতার মাঝেও তার উপর দিয়ে যে সাদা মেঘ ভেসে বেড়ায়, না দেখলে অনবদ্য এই অপরুপ আপনি বুঝবেন না।শুধু সাদা মেঘের হাতছানী নয়? চিড় সবুজ পাহাড়,রৌদ্রউজ্জ্বল ঝর্ণা আর রাস্তার দু ধার ঘেষা চিড় সবুজ চা-বাগান যেন আপনাকেই ডাকছে; দেখে ঠিক তাই মনে হবে।আর কাচের মত উজ্জ্বল সাদা পানির নিচে রং বেরংয়ের পাথরের বিছানা নিয়ে বয়ে চলছে জাফলং পিয়াইন নদী।যার পানি দেখলে স্নান না করে নিজেকে সামলানো বড়ই মুসকিল।নদীর পার ঘেষা গ্রাম পান্তুমাই ঝর্ণাই এই গ্রামকে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ ও সুন্দর গ্রাম হিসেবে পরিচয় দিয়েছে।এরকম আরো হাজারো সৌন্দর্য নিয়ে আপনার অপেক্ষা করছে প্রকৃতিকণ্যা জাফলং, যা দু-চার দশ দিস্তা কাগজে লিখেও সমাপ্ত করা যাবেনা।তাছাড়া মেঘালয় ট্যুরিজম ও দিচ্ছে দারুন সুযোগ, বাংলাদেশের যেকোন প্রান্ত থেকে ৩ দিনের এই সফর মাত্র ৩,০০০ হাজার টাকায় থাকা খাওয়া ফ্রি সহ দিচ্ছে দারুন সুযোগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*