বেনাপোল বন্দরের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে গনশুনানী বৈঠক

বেনাপোল বন্দরের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে গনশুনানী বৈঠক

মোঃ আয়ুব হোসেন পক্ষী, বেনাপোল ( যশোর)প্রতিনিধিঃ ব্যবসা বানিজ্য সম্প্রসারন ও বন্দরের সমস্যা নিয়ে বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ শুদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়নে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করনের লক্ষে গনশুনানী বৈঠক করেন। বুধবার (২৪ এপ্রিল) সকাল ১১ টার সময় বেনাপোল চেকপোষ্টে আন্তর্জাতিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল ভবনে কাস্টমস, সিএন্ডএফ, ইমিগ্রেশন, ব্যাংক, গোয়েন্দা সংস্থা, বিজিবি, সাংবাদিক শ্রমিক প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে বেনাপোল স্থল বন্দরের পরিচালক প্রদোষ কান্তি দাসের সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি অতিরিক্ত অর্থ সচিব আলাউদ্দিন কবির বলেন, দেশ আজ আর ৪৮ বছর আগের দেশ নাই। স্বাধীনতার পর থেকে মানুষের নৈতিকতারও আস্তে আস্তে পরিবর্তনের সাথে দেশে উন্নয়ন অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন, একটি দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিনত করতে হলে প্রয়োজন নৈতিকতা বোধ সততা। নৈতিকতা ও সততা হলো মানুষের কাজ কর্মের শুদ্ধাচার। দেশের আজ অনেক প্রবৃদ্ধি পেয়েছে। মঙ্গা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ কাটিয়ে দেশ আজ এগিয়ে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে রুপান্তরিত হয়েছে। উন্মুক্ত গনশুনানীতে অংশগ্রনকারীরা বেনাপোল বন্দরের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরেন। অংশগ্রনকারীরা বলেন, বেনাপোল বন্দরে নেই প্রয়োজনীয় ইকুইপমেন্ট, নেই ফায়ার সার্ভিসের পর্যাপ্ত সরঞ্জাম, চুরি রোধে নেই কোন সিসি ক্যামেরা। এমনকি প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা কর্মী। এছাড়া বৃহত্তর এই বন্দরে প্রায় ২৫০০ (আড়াই হাজার) শ্রমিক কাজ করে। সেখানে নেই কোন হাসপাতাল এম্বুলেন্স এর ব্যবস্থা। বন্দরে কাস্টমস, বিজিবি ও বন্দরের লোক একই পন্য তিন জায়গা এন্ট্রি করায় একদিকে যেমন আমদানি কমে যাচ্ছে তেমনি অন্যদিকে সময়ও নষ্ট হচ্ছে। এর আগে শুধু কাস্টমস এন্ট্রি করায় এই বন্দরে ৭ থেকে সাড়ে ৭ শত গাড়ি পণ্য আমদানি হতো। বর্তমানে তা কমে দাঁড়িয়েছে মাত্র ৩ শত ট্রাক। বন্দরে জায়গা সংকটের কারনে যানজট হচ্ছে। শুনেছিলাম ১৭৫ একর জমি অধিগ্রহন করা হবে যানজট নিরসনে। কিন্তু সেই জমির ফাইল এখনো মন্ত্রনালয়ে বন্দি রয়েছে। বেনাপোল বন্দর জানে এখানে জমি প্রয়োজন। সময়মত জমি না নিয়ে বর্তমানে তিনগুন দামে জমি অধিগ্রহন করতে হচ্ছে এতে বন্দরের অর্থ বেশী খরচ হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহকারি পরিচালক প্রশাসন জাকির হোসেন, শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসার পুলক কুমার মন্ডল, প্রশাসনিক অফিসার আবুল হোসেন, স্থল বন্দরের সদস্য জাহিদুল ইসলাম, কাস্টমস সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা , বন্দরের উপপরিচালক আব্দুল জলিল, মামুন, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টের সভাপতি মফিজুর রহমান স্বজন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জামাল হোসেন ও মহসিন মিলন, বন্দর বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন, শার্শা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি অহিদুজ্জামান প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*