নোয়াখালী সুবর্ণচরে গৃহবধূর আত্মহত্যা

নোয়াখালী সুবর্ণচরে গৃহবধূর আত্মহত্যা

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার ০৬ নং ইউনিয়ন পরিষদের, ০৭ নং ওয়ার্ড, চরআমান উল্যাহ গ্রামের স্বপন মার্কেট সংলগ্ন। রাখাল মজুমদারের ছেলে শ্যামল মজুমদার এর স্ত্রী দিপুরানী মজুমদার (২১) এর আত্মহত্যা।

বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) দুপুর ১ টার সময়, চরআমান উল্লাহ গ্রামে ছেলের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নিহত দিপু রানী মজুমদারের আত্মহত্যা দেখে স্থানীয়রা চর জব্বার থানায় খবর দিলে ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ বাহিনী নিহতের লাশ উদ্ধার করেন।

নিহত হলো সন্দ্বীপ উপজেলার দিলীপ মেস্তরি বাড়ির। পিতা শীপত মজুমদার, মাতা গীতা রানী মজুমদার। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে দীপু রানী হল প্রথম মেয়ে।

নিহত দীপু রানী কে বিয়ে দিয়েছিল। নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার চর আমানউল্যাহ গ্রামে স্বপন মার্কেটর পূর্ব দক্ষিণ কোর্ণে রাখালের বাড়ির পিতা রাখাল মজুমদার, মাতা সেবা রানী মজুমদারের দুই ছেলের মধ্যে প্রথম ছেলে শ্যামল মজুমদার এর সাথে।

নিহতের ‘মা’ গীতা রানী মজুমদার ( অনলাইন সিটিজি পোস্ট নিউজ ডটকম ) কে বলেল, দীপু রানীর  বিয়ে হয় প্রায় চার মাস, সে দুই মাসেরও বেশি অন্তঃসত্ত্বা ছিল। বিয়ে পর থেকে কোন দিন বাপের বাড়িতে বেড়াতে দেয়নি। মেয়ে প্রায় সময়ে মুঠোফোনে কল করে বলতো। মা আমাকে মারধর, জ্বালাতন ও নির্যাতন করে, এই সব কারণে আমি অসহ্য হয়ে পড়ি। আমাকে এক ব্যবস্থা করেন। তার মা শ্বশুর শাশুড়ির ও জামাইয়ের অসহ্য ও বিরক্তবোধ কে ব্যবস্থা নেবে নেবে বলেই এর মধ্যে নিহতর এই ঘটনা শুনতে পায়েছে।

তার ‘মা’ আরো বলেন, আমাদেরকে খবর দেওয়ার পর বাড়িতে এসে দেখি আমার মেয়ে আত্মহত্যা অবস্থায় খাটের উপর সোয়া। তারা বলেছিলেন আমার মেয়ে গলায় ফাঁসি দিয়েছে। কিন্তু আমার মেয়েকে আমি ঝুলন্ত অবস্থায় পায়নি। এরপরে আমার মেয়ের জামাই শ্যামল মজুমদার পালিয়ে যায়। আমার মেয়ে দীপা রানী মজুমদার কে হত্যা কেন করা হলো, প্রশাসনের সুষ্ঠু তদন্তের মধ্য দিয়ে হত্যাকারীর উপযুক্ত শাস্তি দাবি করছি। এবং তার ফাঁসিও চাচ্ছি।

এই ঘটনা নোয়াখালী চরজব্বর থানার (এসআই) রফিক উল্ল্যাহ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনার লাশ নিহতের বাড়িতে খাটের উপর সোয়া অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এবং গলায় একটি কালো দাগ পাওয়া যায়। লাশ কে ময়না তদন্তের জন্য হসপিটালে পাঠানো হবে়। ময়না তদন্তের মধ্য দিয়ে অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*