তাহিরপুরে তিন পুলিশ কর্মকর্তার ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ

তাহিরপুরে তিন পুলিশ কর্মকর্তার ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ

তাহিরপুর প্রতিনিধি : জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখা পুলিশের কাজ হলেও জনসেবামূলক কাজ করা খুবেই কঠিন কাজ। সেই কাজটি খুব গোছালো ভাবে করে প্রমান করেছে পুলিশ চাইলেই পারে অনেক কিছু করতে। তার কিছু নিদর্শন দেখিয়েছেন তাহিরপুর থানার সদ্য বিদায়ী পুলিশ অফিসার ওসি নন্দন কান্তি ধরসহ কয়েকজন অফিসার। তার উদ্যোগে স্থাপন করা হয়েছে তাহিরপুর উপজেলার কেন্দ্রীয় শ্মশানঘাট ও থানার পুলিশসহ এলাকার মুসুল্লিদের নামাজের জন্য সংস্কার করেছেন তাহিরপুর থানা মসজিদটি। তার ধর্মীয় উন্নয়নমূলক এধরনের কাজে ব্যাপক সহযোগীতা করেছেন,এসআই আমির উদ্দিন, এএসআই রেজা। এজন্য হিন্দু মুসলমান দুই ধর্মের মানুষের কাছে ব্যাপক প্রশংসা ও এলাকাবাসীর মন জয় করেছে তারা। প্রাথমিক ভাবে দুটি প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের কাজ শুরু করে এপর্যন্ত ৯৫ভাগ শেষ করেই অন্যত্র বদলী হন ওসি নন্দন কান্তি ধর। জানাযায়,তাহিরপুর উপজেলা হাওর বেষ্টিত হওয়ায় বর্ষাকালে চারদিকে পানি থৈথৈ করে। ফলে কেউ মারা গেলে দাহ করার জন্য নির্দিষ্ট কোন স্থান ছিল না। শুষ্ক মওসুমে বৌলাই নদীর তীরে আর বর্ষাকালে নিজ নিজ বাড়ির আশপাশের শুকনো স্থানে দাহ করা হতো। কিন্তু যাদের নিজস্ব জায়গা নেই তারা মরদেহের শেষ কৃত্য নিয়ে বিপাকে পড়তেন। ফলে উপজেলার ঠাকুরহাটি,সদর,খলাহাটি,রায়পাড়া,সূর্য্যরেগাঁও,টাকাটুকিয়া,জামলগড়,ধুতমা,চিকসা, গৌবিন্দপুর,টুকেরগাঁওসহ ১৪টি গ্রামের ৮থেকে ১০হাজার হিন্দু ধর্মাবলম্বীর মরদেহ কোথায় শেষ কৃত্য সম্পন্ন করবেন তাদের এমন কোন নির্দিষ্ট স্থান ছিলো না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*