ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত নেপালী ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা

Heritage-site---Homeআন্তর্জাতিক ডেস্ক :: নেপালে স্মরণকালের ভয়াবহ ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা। এর মধ্যে ইউনেস্কো ঘোষিত কাঠমান্ডু ভ্যালির চারটি বিশ্ব ঐতিহ্যও রয়েছে। খবর বিবিসি ও ডেইলিমেইলের।

ঐতিহ্যবাহী ধরাহারা টাওয়ার (ভূমিকম্পের আগে ও পরে)।

নেপালে গত শনিবার অনুভূত হওয়া রিখটার স্কেলে ৭ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ভক্তপুর এলাকা। সংরক্ষিত এই পুরনো শহরটির অর্ধেক বাড়ি-ঘর ধ্বংস ও ৮০ শতাংশ মন্দির ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

Heritage-1কাঠমান্ডু ভ্যালির দরবার স্কয়ার (ভূমিকম্পের আগে ও পরে)।

পাতানের দরবার স্কয়ার (ভূমিকম্পের আগে ও পরে)।

ক্ষতিগ্রস্তের তালিকায় রয়েছে ধরাহারা টাওয়ার। ১৮৩২ সালে নির্মিত ও গগনচুম্বী টাওয়ারটি পুরোপুরি ধ্বংস হয়েছে। ১৯৩৪ সালেও ভূমিম্পে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল টাওয়ারটি। পরে তা পুনর্নিমাণ করা হয়।

মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কাঠমান্ডুর ঐতিহ্যবাহী দরবার স্কয়ার। সামাজিক ও ধর্মীয় দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ এই স্কয়ারটি ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত। বিদেশ থেকে আসা পর্যটকদের কাছে অন্যতম প্রধান আকর্ষণও ছিল এটি।

Heritage-2ভক্তপুরের দরবার স্কয়ার (ভূমিকম্পের আগে ও পরে)।

ভক্তপুর ও পাতানের বিশ্ব ঐতিহ্য দরবার স্কয়ারও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে বিভিন্ন ফুটেজে দেখা গেছে।

ভক্তপুরের দরবার স্কয়ারের প্রধান মন্দিরের ছাদ ধসে গেছে। ১৬ শতকে নির্মিত ওই ভাতশালা দুর্গা মন্দিরটি মার্বেল পাথরের দেয়াল ও স্বর্ণনির্মিত প্যাগোডার জন্য বিখ্যাত।

Heritage5কাঠমান্ডুর রাজপথ (ভূমিকম্পের আগে ও পরে)।

পাতানের দরবার স্কয়ারে তৃতীয় শতকে নির্মিত বেশ কয়েকটি ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বিশ্ব ঐতিহ্যভুক্ত ৫ম শতকের বৌদ্ধমন্দির শম্ভুনাথ মারাত্মক ক্ষতির শিকার হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বৌদ্ধনাথ স্তূপ ও বিশ্ব ঐতিহ্যভুক্ত পশুপতিনাথ স্তূপও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*