নড়াইলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠন গুলোতে খেলার মাঠ সংকট হারিয়ে যেতে বসেছে খেলা ধূলার ঐতিহ্য

নড়াইলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠন গুলোতে খেলার মাঠ সংকট হারিয়ে যেতে বসেছে খেলা ধূলার ঐতিহ্য
উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি■ নড়াইলের শিক্ষার্থীর ব্যাগে বই খাতার পাহাড়,শিশু- কিশোরের হাতে প্রতিষ্ঠিত কোমম্পানীর ফোন, যুব সম্প্রদায়ের সময় কাটে জীবনের নানা কাজে। সুতরাং কোন ভাবেই নিজেদের কে গ্রামিন খেলা ধূলাতে সম্পৃক্ত করতে পারছেনা নড়াইলের কালের প্রজন্ম গোষ্ঠি। অভিভাবকরা মাত্র ৪ বছরের শিশুর হাত থেকে খেলনা সরিয়ে নিচ্ছে, দিচ্ছে কিন্ডার গার্ডেনে ভর্তি করে শিক্ষা জীবনের শুরুতেই কম পক্ষে ৬ টি বই খাতার পৃথিবীতে শিশুদের প্রবেশ করতে হচ্ছে।অন্যদিকে অন্য ভাবেই ক্রিড়া ভাবনা ও শরীর চর্চার সাথে বাস্তবে মিল পাওয়া যাচ্ছেনা কিন্ডার গার্ডেনের শিক্ষার্থীদের। এই সমস্ত শিক্ষার্থীদের অনেকেই স্কুল জীবনে পাচ্ছেনা খেলার মাঠ, শিখতে পারছেনা স্থানিয় গ্রাম ঐতিহ্যের সাক্ষী প্রায় শত রকমের গ্রামিন খেলা ধূলা। এ বিষয়ে এক তথ্য অনুসন্ধানীতে জানা গেছে বিগত ৩৫ বছরে নড়াইলের গ্রাম গুলো থেকে প্রায় অর্ধশত গ্রামিন খেলা হারিয়ে গেছে সময়ের স্রতে। তবে আজো যে সব খেলা গুলোর অস্তিত্ব পাওয়া যায় সে গুলো হলো হাডুডু খেলা,ডাংগুলি খেলা,কানামাছি খেলা,শাখের ভেটা খেলা,বাঘ বকরী খেলা লুকোচুরী খেলা,দড়ি টানা খেলা,চোর ডাকাত খেলা,দাবা খেলা,লুডু খেলা,ভেটা খেলা,ঘুপা খেলা,কপাল টুক খেলা, ইত্যাদী। এ বিষয়ে নড়াইলের পৌর কমিশনার মাহাবুর আলম তিনি আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান, আমাদের সন্তানেরা তাদের স্কুলে খেলা ধূলাহীন বন্দি জীবন এই ভাবনা অবাক করে, সেই সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সেই ভাবে শরীর চর্চা করার সুযোগ না মেলাতে শিক্ষার্থীরা পর্যয় ক্রমে খাটো ও মোটা আকৃতির হচ্ছে বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*