জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরের নারী কেলেঙ্কারির ভিডিও ভাইরাল

জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরের নারী কেলেঙ্কারির ভিডিও ভাইরাল

রোকনুজ্জামান সবুজ , জামালপুর ঃ জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরের সাথে তার অফিসের এর নারী কর্মচারীর অনৈতিক কর্মের একটি ভিডিও সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। খন্দকার সোহেল আহমেদ নামের একটি আইডি থেকে পোস্ট করা হলে মুহূর্তে ভিডিওটি ভাইরাল হয়। বর্তমানে ভিডিওটি মেসেজে মেসেজে ব্যাপক ছড়িয়ে পড়েছে ।
ফেইসবুকে ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা যায়, জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীর তার অফিসের গোপনীয় কক্ষে সানজিদা ইয়াসমিন সাধনা নামে এক নারী কর্মচারীকে জড়িয়ে ধরে চুমু খেতে খেতে ওই কক্ষের ইলেট্রিক লাইটের সুইচ অফ করছেন। এছাড়াও ওই ভিডিওতে তাকে নারী কর্মচারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখা যায়। ৪ মিনিট ৫৮ সেকেন্ডের ওই ভিডিও ফুটেজটি সিএ এম-২ ক্যামেরায় ধারণ করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরের নারী কেলেঙ্কারি নিয়ে র্দীঘদিন ধরে জামালপুরের নানা মহলে গুঞ্জন, কানাঘুষা চলছিল।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা প্রশাসনের এক কর্মচারী জানিয়েছেন, ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ায় জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীর নিজেকে বাঁচাতে কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকতাসহ এক সাংবাদিক নেতাকে নিয়ে বৃহস্পতিবার সারারাত মিটিং করেছেন। মিটিং শেষে ভোর ৬টায় তারা জেলা প্রশাসকের বাসভবন থেকে বেরিয়ে গেছেন।
ভিডিও ভাইরাল হবার ঘটনা জানতে শুক্রবার সকালে জেলা প্রশাসকের বাসভবনে যান ইলেক্টনিক, প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার একদল সাংবাদিক। ওই সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তিনি শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর সার্কিট হাউজে বসে সাংবাদিকদের কাছে এ ব্যাপারে কথা বলবেন।
পরে জামালপুরের সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীর বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ম্যাসেঞ্জারে দেয়া ভিডিওটি তিনি দেখেছেন। সেটি ফেক আইডি থেকে পোষ্ট করা। ভিডিওটিতে তাকে জড়িয়ে এডিট করা একটি সাজানো ঘটনা। ওইসব ভিডিও ফুটেজ তার নয় দাবি করে তিনি বলেন, ভিডিওটি অবশ্য এখন আর অনলাইনে দেখা যায় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*