রোহিঙ্গাদের জন্য স্থানীয় তিন লক্ষ মানুষের সিম কার্ড বন্ধ হচ্ছে কাল – গুজবে আতঙ্কিত উখিয়া-টেকনাফের মানুষ

রোহিঙ্গাদের জন্য স্থানীয় তিন লক্ষ মানুষের সিম কার্ড বন্ধ হচ্ছে কাল – গুজবে আতঙ্কিত উখিয়া-টেকনাফের মানুষ

নাছির উদ্দীন রাজ, টেকনাফ। উখিয়া-টেকনাফে রোহিঙ্গাদের কারনে স্থানীয় ৩ লক্ষ মানুষের ব্যবহৃত সিম কার্ড বন্ধ হচ্ছে কাল এমন গুজব ছড়িয়ে পড়েছে গ্রামেগঞ্জে। কারণ অনুসন্ধানে দেখা যায় গত ২৫ শে আগস্ট প্রায় পাঁচ লক্ষ রোহিঙ্গাকে একসঙ্গে জড়ো করার মূল হাতিয়ার মোবাইল নেটওয়ার্ক। যেখানে বাংলাদেশীদের একটি সিম কার্ড নিতে পিতামাতা বা নিজের জন্ম নিবন্ধন / আইডি কার্ড লাগে, তারপরে একটি মোবাইল সিম পাওয়া যায়। সেখানে কোন মাধ্যমে লক্ষ-লক্ষ রোহিঙ্গারা বিনা আইডি কার্ড বা জন্ম নিবন্ধন ছাড়া, বাংলাদেশি সিম কার্ড ব্যবহার করছে? স্থানীয়দের প্রশ্ন। রোহিঙ্গারা যে কোন সিম কার্ড ব্যবহার করে বিভিন্ন রাষ্ট্রদ্রোহী অপরাধ সংঘটিত করছে সাম্প্রতিক সময়ে। রোহিঙ্গাদের মহাসমাবেশ, যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা, মরণনেশা ইয়াবার বড় চালান ধাড়াপাড়া সহ সবকিছুর যখন প্রমাণ মিলছে, তখনই জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে মোবাইল নেটওয়ার্ক নিয়ন্ত্রণে রাখবে। আর রোহিঙ্গাদের ব্যবহার সিম গুলো বন্ধ করে দেবে, এরপর থেকে উখিয়া-টেকনাফে নেটওয়ার্ক বিপর্যয় শুরু হয়েছে। এক মিনিটের ভিতর কল চলাকালীন সময়ে দু-তিনবার কেটে যাওয়া, নেটওয়ার্ক এর দুর্বলতা সহ বিভিন্ন কিছু যখন হচ্ছে। তখনই বাংলাদেশী উখিয়া-টেকনাফের মানুষের মনে নানান প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। উখিয়া-টেকনাফের বিভিন্ন সিম বিক্রেতা দোকান মালিকদের সাথে কথা বলে দেখা যায়, ১/২ দিন আগে বিভিন্ন নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠান সিম কার্ড নিবন্ধন করার ডিভাইস বা যন্ত্র বিভিন্ন নেটওয়ার্ক কোম্পানি নিয়ে গেছেন। স্থানীয় জনসাধারণ বলছে, ১১ লক্ষ রোহিঙ্গাদের মধ্যে সিংহভাগ রোহিঙ্গারা বাংলাদেশি বিভিন্ন নেটওয়ার্ক কোম্পানির যে সিম ব্যবহার করছে, যথাযথ তদন্ত করা হোক। কিভাবে দিয়েছি? কে দিয়েছে? কোন প্রতিষ্ঠানে দিয়েছে? যে সিম দিয়ে হচ্ছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কোটি কোটি টাকার বিকাশ ব্যবসা, কাউকে অপহরণ করে তার মুক্তিপণের টাকার লেনদেন, রোহিঙ্গাদের ছদ্মবেশে থাকা মায়ানমার রাষ্ট্রের গুপ্তচর বাহিনীরা বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ খবর পাচার করছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। এমতাবস্থায় সন্দিহান হয়ে পড়েছেন উখিয়া-টেকনাফের নেটওয়ার্ক সিম ব্যবহারকারী ব্যক্তিরা। আসলে কি বন্ধ হচ্ছে রোহিঙ্গাদের হাতে ব্যবহৃত সিম গুলি ! নাকি উখিয়া-টেকনাফের নেটওয়ার্ক সিম ব্যবহারকারী মানুষের জনদুর্ভোগ আরো বাড়ছে? জনসাধারণকে এমন গুজব এর সমাধান কি দেবে নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠানগুলো?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*