সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন দলীয় প্রার্থী নির্ধারণ ঘিরে তৃণমূল আওয়ামী লীগে অসন্তোষ

সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন দলীয় প্রার্থী নির্ধারণ ঘিরে তৃণমূল আওয়ামী লীগে অসন্তোষ

তৌহিদুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ আসন্ন ১৪ই অক্টোবর সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন।নির্বাচনে দলীয় মনোয়ন পেতে বিগত নির্বাচনে এক বছর ধরে দৌড়ঝাঁপ করছেন সাতকানিয়া উপজেলার আওয়ামীলীগের তৃণমূলের পছন্দের বিভিন্ন প্রার্থীরা। ইতিমধ্যে কয়েকদফা পেছানো হয়েছে নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা।বিগত ২৭ জানুয়ারি চট্রগ্রাম দক্ষিণ জেলা কার্যালয়ে জেলা-উপজেলা নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে তৃণমূল সভায় সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হতে ইচ্ছুক উপজেলা আওয়ামীলীগের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হলেও আসন্ন নির্বাচনে আওয়ামীলীগ হতে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পাওয়া সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জনাব আবদুল মোতালেব উপস্থিতও হননি বা প্রতিনিধি মাধ্যমেও প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেননি বলে অভিযোগ করেন মনোনয়ন বঞ্চিত সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতারা ও তৃণমূল নেতাকর্মীরা।তাঁরা অভিযোগ করেন গত মাসের ২২শে আগস্ট সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ কতৃর্ক আয়োজিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকীর প্রোগ্রামে জেলা,উপজেলা নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় সংসদ সদস্যর উপস্থিতিতে তিনি তাঁর বক্তব্যে বয়স এবং শারিরীক অসুস্থতার কারণে আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করার জনসম্মুখে আনুষ্ঠানিক ঘোষনা দেন বলে জানান তৃণমূল নেতাকর্মীরা।এ ব্যাপারে স্থানীয় সাংসদ প্রফেসর আবু রেজা নদভী সাহেব উনার ব্যক্তিগত ফেসবুকে স্ট্যাটাসে ক্ষোভ জানান যাতে তিনি বিস্ময় প্রকাশ করেন উনি অত্র এলাকার সাংসদ অথচ মনোনয়ন বিষয়ে উনার থেকে কোন প্রকার মতামত নেওয়া হয়নি বা তৃণমূলের মতামতকে প্রাধান্য দেওয়া হয়নি।তৃণমূল নেতাকর্মীদের অভিমত মনোনয়ন প্রত্যাশী বিগত উপজেলা নির্বাচনে দলের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নুরুল আবছার চৌধুরী,আবু সাঈদ,গোলাম ফারুক ডলার,মোস্তাক আহমেদ আঙ্গুর,স্বাচিপ নেতা ডঃ মিনহাজুর রহমান,বশির উদ্দীন চৌধুরী,কুতুব উদ্দীন চৌধুরী,ফয়েজ আহমেদ লিটন,আবু সালেহ,জসীম উদ্দীন,ইরফানুল করিম চৌধুরী প্রমূখ জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠন ছাত্র জীবন থেকে জামাত শিবির অধ্যুষিত এলাকায় দলের জন্য বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে অবদান রাখা নেতৃবৃন্দরা দলীয় মনোনয়ন না পাওয়া দলের ভাবমূর্তিকে ক্ষুন্ন করবে।তৃণমূলের মতামতকে গুরুত্ব না দেওয়াকে মানতে পারছেননা তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*