ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়া থানার ২৭ টি মন্ডপে দূর্গা, প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত শিল্পীরা

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়া থানার ২৭ টি মন্ডপে দূর্গা, প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত শিল্পীরা

মোঃ দুলাল হক, রুহিয়া (ঠাকুরগাঁও ) প্রতিনিধি । আকাশে সাদা মেঘের ভেলা আর মাঠে কাঁশফুল।সার্বজনীন শারদীয় দূর্গা পূজোর তখনো প্রায় ২২/২৩ দিন বাকী,দূর্গা,লক্ষী,স্বরতী,গনেশ আর মহি ঠাকুর সঙ্গে দেবীর বাহন সিংঘ কে গড়তে হবে। তাই ব্যাস্ত প্রতিমা শিল্পীরা মন্দিরের ঐতিহ্য ও সাজসজ্জা মাথায় রেখে প্রতিমার সাজসজ্জা সেই ঐতিহ্য নিপুন হাতের ছোঁয়ায় ফুটিয়ে তুলতে হয় এসব মাথায় রেখে। তাই রুহিয়া থানার প্রতিটি মন্ডপে চলছে হিন্দু ধর্মাম্বলীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব সার্বজনিন শারদীয় দূর্গা পুজোর প্রস্ততি পুরোদমে। শল্পীরা মন্ডপে মন্ডপে প্রতিমা তৈরিতে ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন । রুহিয়া রামনাথ হাট শ্রী-শ্রী সার্বজনীন দূর্গা মন্ডপ সহ কোন কোন মন্ডপে প্রতিমার কাঠামো তৈরি করে মাটির প্রলেপ দেওয়ার কাজ প্রায় শেষ হয়েছে।এখন বাকী শুধু রংতুলির ছোঁয়া আর কাপড় পড়ানোর কাজ বাকি, পাশাপাশি ভক্তরা পূজোর প্রস্তুতি নিয়ে এখন অপেক্ষার
প্রহর গুনছেন, রুহিয়া থানার ৫ ইউনিয়নে ছোট বড় মিলিয়ে ২৭টি মন্ডপে দূর্গাপূজো হবে বলে রুহিয়া থানার অফিসার
ইর্ন্চাজ ওসি প্রদীপ কুমার রায় (দৈনিক লোকায়ন কে) জানান এছাড়া ব্যক্তি গত পর্যায়েও অনেকে নিজস্ব মন্ডপে প্রতিমা তৈরি করে থাকেন। সবগুলো ম্ন্ডপেই প্রতিমা তৈরি হচ্ছে। প্রতিমা তৈরি শিল্পীদের যেন এতটুকু নিঃশাস ফেলর সময় নেই। দিনরাত মাটি,খড়,রং সহ সবরকম উপকরন নিয়ে তারা ব্যস্ত,কেউ খড় দিয়ে কাঠামো তৈরি করছেন,কেউ মাটি লাগাচ্ছেন।মাটির কাজ শেষ হলেই দেয়া হবে রংয়ের আঁচর কিন্তু ভক্তদের যেন আর তর সইছেনা। নিরাপত্তা বিষয়ে জানতে চাইলে রুহিয়া রামনাথহাট শ্রী-শ্রী সার্বজনিন দুর্গামন্দীর এর সহ-সভাপতি রামকৃষ্ণ রায় বলেন, যেহেতু আমরা রুহিয়া থানা সংলগ্ন সেহেতু আমরা নিরাপদ মনে করছি। অপর দিকে ১৪ নং রাজাগাঁও ইউনিয়নের চুয়ামণি বাজার শ্রী-শ্রী সার্বজনিন দুর্গামন্দীর সভাপতি, সন্তোস চন্দ্র সরকার, নিরাপত্তা বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন আমার প্রতিবেশী মুসলমান ভাইয়েরা আছেন আমাকে প্রতিবছরই নিরাপত্তা ও সহযোগীতা করে আসছেন তাই আমি নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দবোধ মনে করছি। অপর দিকে চাপাতি মলানী ডাঙ্গা শ্রী-শ্রী সার্বজনীন শারদীয় দূর্গা মন্ডপ কমিটির সভাপতি জেলা পরিষদ মেম্বার ও ১৪ নং রাজাগাঁও ইউনিয়ন আঃ লীগের সভাপতি নৃপ্রেন্দ্র নাথ ঝাঁ বলেন সমস্যা হওয়ার কথা নয় তাছাড়া পুলিশ আছে আনছার সদস্যরা থাকবে সমস্যা হবেনা। তবে ঝুঁকিপূর্ন বড়দেশ্বরী শ্রী-শ্রী দূর্গাপুজো মন্ডপটিতে।
১৪নং-পাটিয়াডাঙ্গী হাট শ্রী-শ্রী সার্বজনিন দুর্গা মন্দীর সাধারন সম্পাদক বিমল চন্দ্র রায় বলেন আমাদের অভ্যান্তরীন বিষয়ে কন্দোল চলছে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর (বৃহঃবার) কন্দোল সমাধান হলে শ্রী-শ্রী দূর্গা তৈরির কাজ শুরু হবে।
খড়িবাড়ী শ্রী-শ্রী সার্বজনিন দুর্গা মন্দীর সভাপতি কাঞ্চন সেন, বড়দেশ্বরী শ্রী-শ্রী সার্বজনিন দুর্গা মন্দীর সাধারন সম্পাদক পরিমল রায় জানান, পুলিশ আছে, আনছার ভিডিবি আছে স্থানীয় জনগন আছে কাজেই কোন রকম সমস্যা হবেনা বলে আমরা আশা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*