প্রেমের বিয়ে, ফুলশয্যায় দেখা গেলো স্ত্রী হিজড়া!

marriageআন্তর্জাতিক ডেস্ক :: এক কোম্পানিতে কাজ করেন দু’জন, বসেনও পাশাপাশি। এক পর্যায়ে মেয়েটিকে ভালোবেসে ফেলেন যুবকটি। মেয়েটিকে মনের কথা জানালে সেও রাজি হয়ে যায়। বেশ কিছুদিন চুটিয়ে প্রেম চলে। আস্তে আস্তে বিয়ে পর্যন্ত গড়ায় তাদের ভালোবাসা। সেইমতে আইন মেনে বিয়েও করেন তারা।

ছেলের বাড়ির লোকজনও তার বিবাহিত মেয়েকে মেনে নেয়। শর্ত শুধু একটাই, হিন্দু রীতি-নীতি মেনে আবার তাদের বিয়ে দেয়া হবে। কিন্তু বিপত্তি বাঁধে ফুলশয্যার রাতে। যুবকটি বুঝতে পারে তার স্ত্রী কোনো মেয়ে নয়, একজন হিজড়া!

রাগে-দুঃখে বাসর ঘরে স্ত্রীকে একা রেখেই বেরিয়ে যান ওই যুবক। কোনোমতেই তিনি তার স্ত্রীর সঙ্গে সংসার করবেন না বলেই সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু মেয়েটির বাড়ির লোকজন চায় তারা দু’জন একসঙ্গেই থাকুক।

এ নিয়ে লেগে যায় বিবাদ। অবশেষে পঞ্চায়েতের দ্বারস্থ হয় দুই পরিবার। সেখানেই ফয়সালা হয়- একসঙ্গে নয়, নবদম্পতি এখন থেকে আলাদা থাকবে। এ জন্য অবশ্য কনের খরচ বাবদ কিছু টাকা ছেলের বাড়ির পক্ষ থেকে দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

এমনই এক আজব ঘটনা ঘটলো ভারতের গাজিয়াবাদের মুরাদনগর এলাকায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*