স্বাধীনতার ৪৬ বছর পার হলেও আমরা এখনো গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করতে পারিনি

স্বাধীনতার ৪৬ বছর পার হলেও আমরা এখনো গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করতে পারিনি

কিংকর শীল , যশোর জেলা প্রতিনিধি।।বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘গণতন্ত্রের আকাঙ্খা নিয়ে আমরা ১৯৭১ সালে মুক্তিয্দ্ধু করেছি। কিন্তু স্বাধীনতার ৪৬ বছর পার হলেও আমরা এখনো গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করতে পারিনি। এজন্য সাধারণ মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিত হয়নি। গণতন্ত্রের একটি অন্যতম অধিকার হচ্ছে নাগরিকদের ভোটারাধিকার প্রয়োগের ক্ষমতা। কিন্তু আমাদের দেশে সেই ক্ষমতা এখন আর নেই। এখন গণতন্ত্রের নামে শেখ হাসিনা তার ইচ্ছা বাস্তবায়নের অপচেষ্ঠা করছেন। এই ধারা ভাঙতে এদেশের জাতীয়তাবাদী শক্তিকে জেগে উঠতে হবে।’বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষে যশোর জেলা বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এসব কথা বলেন।তিনি আরো বলেন, ‘দেশের কথা যারা ভাবছে সেই নতুন প্রজন্মকে ভেঙে দিতে সরকার নানামুখি তৎপরতা চালাচ্ছে। হাজার হাজার নেতাকর্মীর নামে মামলা দিয়ে, গ্রেপ্তার করে, ক্রয়ফায়ারের ভয় দেখিয়ে সমাজে ভিতি সৃষ্টি করা হচ্ছে। তারপর এদেশের মানুষে হাসিনার কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করছেন। এ থেকে বোঝা যায় এদেশে দেশপ্রেমিক মানুষের অভাবে নেই। দরকার একটি সময় উপযোগি সাহসী নেতৃত্ব। আগামী দিনে সেই নেতৃত্ব দেবেন তারেক রহমান। যার নেতৃত্বে বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে।’

যশোর জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুল হুদার সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম, খুলনা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অমলেন্দু দাস অপু।এছাড়া আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাবেরুল হক সাবু, নগর বিএনপির সভাপতি মারুফুল ইসলাম, বাঘারপাড়া উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার টিএস আইয়ুব, কেশবপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবুল হোসেন আজাদ, ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাবিরা নাজমূন মুন্নি, জেলা যুবললের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এম তমাল আহমেদ, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রবিউল ইসলাম প্রমুখ। আলোচনা সভাটি পরিচালনা করেন জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খোকন।এ দিকে বৃহস্পতিবার সকালে যশোরের একটি অভিজাত হোটেলে স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে গয়েশ্বও রায় বলেন জনগণের দ্বিধাহীন বাধাহীন নিরাপদ ভোট দেওয়ার পরিবেশ যতক্ষণ দৃশ্যমান না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত বিএনপি লড়বে।তিনি বলেন, ‘বিএনপির জন্ম হয়েছে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার অঙ্গিকার নিয়ে। এই বহুদলীয় গণতন্ত্র যতক্ষণ প্রাতিষ্ঠানিক রূপ না পাবে, ততক্ষণ বিএনপি লড়াই চালিয়ে যাবে।গয়েশ্বর বলেন, তিনি বলেন, মিছিল করা আমাদের অধিকার। মিছিলকারীরা যদি ক্ষুব্ধ হয়ে কারো যানবাহনে আঘাত করে এমন আশঙ্কার বশবর্তী হয়ে পথ চলতে দেওয়া হবে না, সেটা তো গণতন্ত্র না, এটা প্রচলিত আইন বিধানেরও পরিপন্থী।”আমরা কোনো নিয়ম ভঙ্গ করি কিনা, প্রশাসন সেটা দেখতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*