বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) বাসীর আস্থা ও বিশ^াসের নাম অধ্যক্ষ নূর আফরোজ বেগম জ্যোতি !

বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) বাসীর আস্থা ও বিশ^াসের নাম
অধ্যক্ষ নূর আফরোজ বেগম জ্যোতি !

শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধি : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সমবায় দলের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান, বগুড়া জেলা বিএনপি’র উপদেষ্টা ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের এক সময়ের প্রভাবশালী এমপি এবং বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) আসনের জনগনের নয়নের মণি ও আস্থাভাজন প্রাণপ্রিয় নেত্রী অধ্যক্ষ নূর আফরোজ বেগম জ্যোতি। সাধারণ মানুষের হৃদয়ের মধ্যে বিরাজ করছেন তিনি। নানান জনকল্যাণমুখী কর্মকান্ডে জড়িত থাকা জনতার নেত্রী অধ্যক্ষ নূর আফরোজ জ্যোতিকে এলাকার গরীব-দুঃখীরা ভালোবেসে ডাকেন ‘জ্যোতি আপা’ বলে। তিনি জনগণের কল্যাণে ও এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন এবং আরও বেশী বেশী কাজ করে যেতে চান।
জানাযায়, সাবেক এমপি অধ্যক্ষ নূর আফরোজ বেগম জ্যোতি ছাত্র রাজনীতি থেকেই মূল ধারার রাজনীতিতে এসেছেন। আর এমপি হয়ে মানুষের সেবা ও এলাকার উন্নয়ন করেছেন ব্যাপক ভাবে। তবে বর্তমানে তিনি জনপ্রতিনিধি না হয়েও নানান ভাবে মানুষের কল্যাণে কাজ করে চলছেন। তিনি এমপি থাকাকালীন সময়ে তার নিজের মেধা, যোগ্যতা ও সাংগঠনিক দক্ষতা আর মানুষকে ভালোবেসে সর্বস্তরের জনগণের আস্থাঅর্জন করেছেন। আর এমপি থাকাকালীন সময়ে নানাভাবে মানুষের কল্যাণে ও এলাকার উন্নয়নে কাজ করে ছিলেন। তার দৃষ্টিনন্দন কাজগুলোর মূল পরিকল্পনা, তার নিজ চিন্তা এবং মননশীল দৃষ্টি দিয়ে সৃষ্টি করে ছিলেন। তার উদ্যোগে ও কর্মে খুশি ছিল নানান শ্রেণী-পেশার মানুষ।
এলাকার বিভিন্ন স্তরের জনগণ বলেন, সাবেক এমপি অধ্যক্ষ নূর আফরোজ জ্যোতি কাজ কর্মে যেমন তড়িৎকর্মা, চিন্তা চেতনাতেও তেমন উন্নত। এটি আমাদের মুগ্ধ করেছে। তারা আরও বলেন, প্রাণপ্রিয় নেত্রী অধ্যক্ষ নূর আফরোজ জ্যোতি রাজনীতিকদের জন্য এক অনুসরণীয় ব্যক্তিত্ব। যার জনপ্রিয়তা আকাশ ছোঁয়া। এছাড়াও ফেসবুক টামলাইন ঘাঁটলেই বোঝা যায় তিনি ঠিক কতোখানি জনপ্রিয়। যিনি কিনা সবসময় নিজের এলাকার মানুষের কথা চিন্তা করেন, ঘুমোনোর আগেও একবার জনগনের কথা চিন্তা করে ঘুমান! তাই এলাকার মানুষের কাছে আস্থা ও বিশ^াস এবং আবেগের নাম সাবেক এমপি অধ্যক্ষ নূর আফরোজ জ্যোতি। তিনি ছুটে যান মাঠে-ঘাটে, কখনো বৃষ্টিতে ভিজে, রোদে পুরে চলে যান মেহনতি মানুষের পাশে। তিনি একজন উচ্চ শিক্ষিত মানুষ হয়েও সাধারণ মানুষের সঙ্গে মেশেন বন্ধুর মতো।
এ ব্যাপারে সাবেক এমপি অধ্যক্ষ নূর আফরোজ বেগম জ্যোতি বলেন, ‘আমি স্বপ্ন দেখি বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) আসনটি হবে একটি একান্নবর্তী পরিবারের মতো। যেখানে সকল ধর্মবর্ণের মানুষ মিলেমিশে বসবাস করবে। আমি জনগণের কল্যাণের জন্য আরও বেশী বেশী কাজ করে যেতে চাই। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে সন্ত্রাসমুক্ত এবং মাদকমুক্ত অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার একজন কর্মী হতে চাই। এজন্য সকলের দোয়া ও আর্শিবাদ কামনা করছি। তিনি আরও বলেন, আমি শিবগঞ্জ তথা বগুড়ায় বিএনপিকে আরও শক্তিশালী করবো। ইতিমধ্যে বিভিন্ন এলাকায় সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরদার করার লক্ষ্যে কাজ করেছি। আর এর মাধ্যমেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও দেশনায়ক তারেক রহমানের হাত আরও শক্তিশালী হবে। আমি দলের জন্য অতীতে কাজ করেছি, বর্তমানে করছি ও ভবিষ্যতে করবো, ইনশাআল্লাহ।
এদিকে বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) এলাকার বিভিন্ন স্তরের নেতা-কর্মীরা বলেন, কর্মী বান্ধব সাবেক এমপি অধ্যক্ষ নূর আফরোজ বেগম জ্যোতি বিএনপিকে আরও সু-সংগঠিত ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে দলের সকল আন্দোলন-সংগ্রামে অংশগ্রহণ করে চলছেন। তাই তাকে আগামী নির্বাচনে বগুড়া-২ আসনে বিএনপির মনোনীত এমপি প্রার্থী হিসেবে দেখতে চাই। কারণ তিনি এলাকায় নিয়মিত দলীয় কর্মসূচি (আন্দোলন-সংগ্রাম) সহ পথসভা, মতবিনিময় ও গণসংযোগ এবং সামাজিক অনুষ্ঠানেও যোগ দিচ্ছেন। তিনিই দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় সাধারণ মানুষের পাশে রয়েছেন। তিনি বিভিন্ন দূর্ঘটনায় কবলিতদের নিয়মিত খোঁজ-খবর রাখেন। তাই তিনিই মনোনয়নের দাবিদার। তারা আরও বলেন, বিগত দিনে দলের জন্য তার অনেক ত্যাগ রয়েছে। তার ত্যাগ ও ব্যক্তিগত ক্লিন ইমেজের কারণে তিনি মনোনয়ন পেলেই এমপি নির্বাচিত হবেন। কারণ তিনি মানুষের কল্যাণের জন্যই রাজনীতি করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*