বাকেরগঞ্জের পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মাদক ব্যবসায়িরাও প্রার্থী হচ্ছেন!

বাকেরগঞ্জের পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মাদক ব্যবসায়িরাও প্রার্থী হচ্ছেন!
বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি ॥বাকেরগঞ্জের ১৩নং পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মাদক ব্যবসায়িরাও প্রার্থী হচ্ছেন। সরেজমিনে পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়ন ঘুরে জানা গেছে, আসন্ন বাকেরগঞ্জ পাদ্রীশিপুর ইউনিয়ন উপ-নির্বাচণে জাকারিয়া সোহেব মিরাজ তার বিগত সময়ের অপকর্ম ঢাকতে এখন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদন্দিতা করছে। এলাকা সূত্রে জানা যায়, এই মিরাজের বিরুদ্ধে বিগত দিনে মাদক, ইয়াবা ব্যবসা সহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে। মিরাজের পিতা রত্তন আলী মাষ্টার বিএনপির একজন সক্রিয় কর্মি। তার বড় ভাই জাকারিয়া রিপন পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতির দায়িত্বে আছেন এবং তার ছোট ভাই জাকারিয়া কামালও বিএনপি’র একজন সক্রিয় কর্মি। তারা বিএনপির প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল ইসলাম মোল্লার পক্ষে জোড়ালোভাবে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। মিরাজ বিএনপি পরিবারের লোক হয়ে কিভাবে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হলেন তা অগোচরে। আরও জানা যায়, এলাকার আশ্রাব হাওলাদারের কুলাঙ্গার পুত্র চিহ্নিত মাদক ও ইয়াবা ব্যবসায়ি আলিম সাথে নিয়ে এলাকার নিরিহ মানুষকে বিভিন্ন ফাঁদে ফেলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে। এই আলিম বিগত দিনে ইয়াবা ও ফেন্সিডিলসহ পুলিশের কাছে তিনবার গ্রাফতার হয়েছিল। আলিম সাংবাদিকের সাইনবোর্ড ব্যবহার করে এসব ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে বলে জানিয়েছে এলাকার অনেকেই। আলিমের এসব মাদক ব্যবসার জোগান ও ব্যাক-আপ দেয় মিরাজ। গোপন সূত্রে জানা যায়, বরিশালের এক যুবলীগ নেতার বাসার বাজার টানতেন মিরাজ। মাদক ব্যবসার পাশাপাশি নারী ব্যবসায়ের সাথেও জড়িত আছে। ফলে অল্প দিনেই টাকার পাহাড় গড়েছেন তিনি। এ যেন আঙ্গুল ফুলে গলাগাছ। এখন দেখার বিষয় একজন মাদক ও নারী ব্যবসায়ি এসব অপকর্মেও সাথে জড়িত থাকার পরও কিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচনে জয়লাভ করবেন। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষরিত আওয়ামীলীগের মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী থাকা সত্বেও কি কওে একজন মাদক ব্যবসায়ি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবে তা নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে জনমনে?

One comment

  1. ১৩নং পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়ন পরিষদ(উপ) নির্বাচনে”স্বতন্ত্র”প্রার্থীঃ-মোঃজাকারিয়া সোয়েব(মিরাজ)বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ”(সহ-সভাপতি)রাজপথের লড়াকু সৈনিক।দলের দুর্দিনের কান্ডারী।নম্র,ভদ্র,শিক্ষীত,ও গরিব দুঃখী মানুষের পাশে থেকে তাদের সেবা করে গেছেন সবসময়,নিঃস্বার্থ ভাবে।এবং,অত্র-ইউনিয়নের সভ্রান্ত;মুসলিম’পরিবারের সন্তান।ও ৪নং ওয়ার্ডের ঐতিহ্যবাহী”মোক্তার বাড়ির”তুমুল জনপ্রিয় শিক্ষকঃ মরহুম নুরুল হক(রত্তন) সাহেবের কনিষ্ট তম পুত্র। আমার ব্যাখ্যাঃঅত্র-১৩নং পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়নের সাধারন মানুষের কাছে, মোঃজাকারিয়া সোয়েব (মিরাজ)এর এতো জনপ্রিয়তা দেখে,ঈর্ষানীত হয়ে,কিছু কু-চক্রী মহল অজথা মিথ্যা,বানোয়াট,ও বিভ্রান্তি মূলক অপ-প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন,এর কতটা স্বার্থকতা আছে।তা একমাত্র ১৩নং পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়ন বাসীই ভালো বলতে পারবেন।আমি,অত্র ১৩নং পাদ্রীশিবপুরের একজন সাধারন নাগরিক হয়ে,এরকম অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা জানাই।পাশা পাশী ১৩নং পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়নের শান্তিপ্রিয় জনগনের সাথে একাত্ততা পোষন করে,প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।ভবিষ্যতে যাতে ভদ্র লোকের সন্মান নিয়ে কেউ বিভ্রান্তি না করতে পারে।তার যথাযত পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ করছি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*