আলোর আহরণে ডিঙ্গি নৌকায় পাড়ি!

আলোর আহরণে ডিঙ্গি নৌকায় পাড়ি!
রোকনুজ্জামান সবুজ, ইসলামপুর (জামালপুর) প্রতিনিধি : আলোর আহরণে ডিঙ্গি নৌকায় পাড়ি দিয়ে যেতে বিদ্যালয়ে হয় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের। তবে শিক্ষার আলো আহরণের পথে বাঁধা কেবল আলাই নামক একটি খাল। খালটিতে ব্রিজ না থাকায় কোমলমতি ছাত্রছাত্রীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছোট্র একটি ডিঙ্গি নৌকায় প্রতিদিন নদী পারাপার হয়ে শিক্ষালয়ে যেতে হয়। এতে জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের আলাই পূর্বপাড়া এলাকার ২শতাধিক শিক্ষার্থীসহ গ্রামের প্রায় সাড়ে ৩ হাজার মানুষ প্রতি মুহুর্তে আলাই খালে নৌকা ডুবির আতংকে রয়েছেন ।
এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীরা জানায়, এমপি আসে এমপি যায় কিন্তু যুগ যুগেও নির্মাণ হয়নি এ অঞ্চলের মানুষের স্বপ্নের আলাই ব্রিজ। যে কারণে প্রতিদিন আলাই পূর্বপাড়া গ্রামের ছাত্রছাত্রী ও গ্রামবাসীকে ছোট্র একটি খেয়া নৌকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নদী পারাপার হতে হয়। তাদের অভিযোগ, বিএনপির সাবেক এমপি সুলতান মাহমুদ বাবু ২০০৩ সালে আলাই পূর্বপাড়া গ্রামের ছাত্রছাত্রী ও গ্রামবাসীর জীবনের ঝুঁকি থেকে রক্ষার জন্য পচাবহলা বাজার সংলগ্ন আলাই নদীর উপর ১টি ব্রিজ নির্মাণের আশ^াস দিয়ে ছিলেন। তার আশ^াস আশ^াসই রয়েগেছে। ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর বর্তমান এমপি ফরিদুল হক খান দুলালও আলাই ব্রিজ নির্মাণের একাধিকবার আশ^াস দেন। এতে ওই এলাকার মানুষ আলাই খালে মির্মিত ব্রিজ দেখতে পেলেন না। এ সরকারের ক্ষমতাও প্রায় শেষের পর্যায়ে। কিন্তু পচাবহলা জয়তুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দেড়শতাধিক ছাত্রছাত্রী এবং আলাই পূর্বপাড়া গ্রামের মানুষের নদী পারাপারে তাদের প্রাণের দাবি আলাই ব্রীজটি নির্মাণ হয়নি। ফলে যুগ যুগ ধরে গ্রামটির মানুষ ও শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছোট খেয়া নৌকায় নদী পারাপার হতে বাধ্য হচ্ছেন।
এ ব্যাপারে ইসলামপুর উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী কার্যালয়ের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আবু সালেহ মোহাম্মদ ইউসুফ শাহী জানান, আলাই খালে ব্রিজটি অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ। জরুরী ভিত্তিতে ব্রিজটি নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্যাদি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*