বেজা  অধিগ্রহণের টাকা না পেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ! 

বেজা  অধিগ্রহণের টাকা না পেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ! 

মুহম্মদ তাহজীবুল আনাম,কক্সবাজার থেকে। বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল  (বেজা) কর্তৃক ধলঘাটা ইউনিয়নের জমি অধিগ্রহন করার পর গত ১২ জুলাই থেকে ক্ষতিগ্রস্ত জমির মালিকদের মধ্যে চেক বিতরন করা শুরু করেন। ১৪৭ কোটি টাকা ক্ষতিপূরনের  মধ্যে এখন পর্যন্ত শুধুমাত্র আনুমানিক দেড় কোটি টাকা পর্যন্ত মানুষ ক্ষতিপূরণ বুঝে পেয়েছে তাও দালালের মাধ্যমে। বাকী টাকা ভূমি বিবিধ মামলা,অভিযোগ, আবার বিএস মূলে নোটিস দেওয়া সত্বেও ডি আর আ সহ আরো নানা ধরনের সমস্যা দেখিয়ে ভূমি অধিগ্রহন কর্মকর্তা টাকা প্রদান করতে অপারগতা দেখাচ্ছে। ফলে হয়রানীর স্বীকার হচ্ছেন ক্ষতিগ্রস্থ জমির মালিক। অনেকেই এই কষ্ট সহ্য করতে না পেরে  হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর মুখে ডলে পড়েছে যার বাস্তব প্রমাণ সাবেক চেয়ারম্যান মোক্তার আহম্মদের ছোট ভাই, বর্তমান ধলঘাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামরুল হাসানের  চাচা নুরুল ইসলাম। তিনি গত দুই মাস আগে তার জমির কাগজপত্র দেখিয়ে ওনার ভাগে আনুমানিক ১ কোটি ৭০ লাখ টাকার চেক গ্রহন করার কথা ছিল। কিন্তু দুঃখের বিষয় ঠিক চেক গ্রহন করার পূর্বে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে কুতুবদিয়ার রবিউল হোসাইন গং বাদী হয়ে বি এস রেকর্ড এর জন্য মামলা করে জমির ক্ষতিপূরণ দাবী করে আদালত থেকে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা চেয়ে নোটিশ প্রদান করলে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা নুরুল ইসালামকে চেক প্রদান না করে ফিরিয়ে দেন। ফলে তিনি বড় নি:শ্বাস ফেলে মন্তব্য করেন যে- হাইরে বাব দাদার রেখে যাওয়ার সম্পদ এবং সম্পদের টাকা না পেয়েই মৃত্যুবরণ করতে হবে। সেই থেকে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরবর্তীতে ভূমিঅধিগ্রহন কর্মকর্তা উক্ত মামলা নিষ্পত্তি করে টাকা প্রদানের জন্য গত ১৩ সেপ্টেম্বর শুনানী গ্রহন করেন। উক্ত শুনানীতে বাদী কতৃক মামলার অংশটুকু জমির টাকা রেখে বাকী জমির মূল্য প্রদান করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও দূর্ভাগ্যক্রমে চেক না পেয়ে নিরাস হয়ে  নুরুল ইসলাম ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েন ফলে তার পরিবারের লোকজন গত ১৪ সেপ্টেম্বর ডা. অাশিষ কুমারকে দেখালে তৎক্ষনাত তাকে চট্টগ্রাম ম্যাক্স হাসপাতালে ভর্তি করার পরামর্শ দেন। কিন্তু দূর্ভাগ্যক্রমে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করালেও শেষ রক্ষা হয়নি। অবশেষে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়তে লড়তে  ১৫ সেপ্টেম্বর বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটের সময় মৃত্যুবরন করেন নুরুল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*