জয়পুরহাটে টি টি সি দেখাচ্ছে আলোর পথ

জয়পুরহাটে টি টি সি দেখাচ্ছে আলোর পথ

আব্দুল হাসিব , জয়পুরহাট প্রতিনিধি : জয়পুরহাটের কারিগরী প্রশিক্ষন কেন্দ্রটি এখন এই জেলার শিক্ষার্থীদের দেখাচ্ছে আলোর পথ। বর্তমান সরকারের উদ্যোগের ফলে ২০১২ সালে প্রশিক্ষন কেন্দ্রটির নির্মান কাজ শুরু হয়ে তা ২০১৫ সালে সম্পন্ন হয়। একই বছর জুলাই মাস থেকে এই প্রশিক্ষন কার্যক্রম শুরু করা হয়। এর ফলে জেলার বেকার তরুন-তরুনী, প্রশিক্ষনার্থীরা বিভিন্ন ট্রেডের প্রশিক্ষন নিয়ে দেশে-বিদেশে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে। প্রশিক্ষন কাজে নিয়জিত ১০ জন দক্ষ প্রশিক্ষক ও ১৬জন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়ে বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

প্রশিক্ষন কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, প্রতিষ্ঠানটি বর্তমানে কম্পিউটার, ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স, আর্কিটেকচারাল, অটোমোবাইল, গার্মেন্টসসহ ২২টি কোর্স নিয়ে তাদের প্রশিক্ষন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

সদ্য কম্পিউটার প্রশিক্ষন নিয়ে বেরিয়ে আসা শিক্ষার্থী আনোয়ার হোসেন  জানান, আমি আগে কম্পিউটারের তেমন কিছুই জানতাম না, এখানে ভর্তি হয়ে আজ আমি কম্পিটারের কাজ শিখেছি। সেই সাথে আমি সরকারী ভাবে একটি সনদপত্র ও পেয়েছি। যা আমার চাকুরী জীবনে অনেক সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

গার্মেন্টস ট্রেডে প্রশিক্ষন নিতে আসা একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী জান্নাতুল  জানান, আমি এই প্রশিক্ষন নিয়ে নিজের পায়ে দাড়াতে চাই, যেন সমাজে, বাবা-মা ও স্বামীর বোঝা না হই। তিনি আরো বলেন, আমরা খুব সুন্দর ও নিরাপত্তার সহিত এই প্রশিক্ষন নিয়ে নিজের পায়ে দাড়াতে পারছি।

প্রশিক্ষন নিতে আসা ইলেকট্রিক্যাল ট্রেডের শাহারুল ইসলাম, ইলেকট্রনিক্স, ট্রেডের নাজমুল হোসেন আর্কিটেকচারালের উজ্জল হোসেন ও অটোমোটিভ ট্রেডের বাছির উদ্দিনসহ কয়েকজন শিক্ষার্থীরা জানান, আমরা এই ধরনের প্রশিক্ষন আমাদের নিজেদের জেলায় নিতে পারছি বলে ঢাকা, বগুড়া, রাজশাহীসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যেতে হচ্ছে না, এতে করে আমরা অর্থ ও সময় দু’দিকেই অনেক সুবিধা পাচ্ছি ।

এ ব্যাপারে জয়পুরহাট সরকারি কারিগড়ি প্রশিক্ষন কেন্দ্র (টি টি সি)’র অধ্যক্ষ রাশেদুল ইসলাম  বলেন , বর্তমান সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক মন্ত্রনালয়ের অধিনে জনশক্তি কর্মস্থান ও প্রশিক্ষন ব্যুরোর আওতায় জয়পুরহাটে কারিগরী প্রশিক্ষন কেন্দ্রটি বর্তমানে যুগোপযোগী যে সব ট্রেডে তরুন-তরুনীদের যে প্রশিক্ষন দিয়ে যাচ্ছে তাতে বেকার সমস্যার সমাধানে ও জাতীয় অর্থনীতিতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে আমরা আশা রাখি।

জয়পুরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড.সামছুল আলম দুদু ও জয়পুরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এর নিরলস পরিশ্রমের ফলে আজকে এ জেলার মানুষ এই ধরনের সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারছেন বলেও স্বীকার করেন টিটিসি অধ্যক্ষ।

তিনি আরো বলেন, এই প্রশিক্ষন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার পর থেকে এখন পযর্ন্ত আমাদের এই প্রশিক্ষন কেন্দ্র থেকে প্রায় ৫ হাজারের ও অধিক প্রশিক্ষানার্থীরা বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষন গ্রহন করে তারা দেশে-বিদেশী বিভিন্ন কর্মস্থানে নিয়োজিত রয়েছে।

তিনি জানান, বর্তমানে আমাদের এই কেন্দ্রটিতে যতগুলো প্রশিক্ষক থাকার কথা তা পর্যাপ্ত না থাকায় আমাদের শিক্ষা দিতে একটু হিমসিম খেতে হচ্ছে। তিনি বলেন আমাদের যদি আর কিছু প্রশিক্ষক,কর্মকর্তা ও কর্মচারীর শূন্যপদ গুলো পূরন করা হতো এবং সেই সাথে আরো কিছু ট্রেড যোগ করা হতো তাহলে বর্তমান সরকার দেশের যে, বেকার সমস্যা দুর করানোর উদ্যোগ নিয়েছে তা দ্রুত বাস্তবায়ন করা সম্ভব হতো এবং কারিগরি শিক্ষার হার ও বৃদ্ধি পেতো

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*