বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে মেধার কোন বিকল্প নেই

বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে মেধার কোন বিকল্প নেই

রবীন্দ্র-নজরুল স্মৃতি মেধাবৃত্তি পরীক্ষার হল পরিদর্শনকালে আওয়ামীলীগ নেতা সুজন

যীশু সেন, স্টাফ রিপোর্টার ঃ চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি জননেতা আলহাজ্ব খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে মেধার কোন বিকল্প নেই। আজকের প্রজন্মের শিশুরাই আগামী দিনে দেশ ও জাতির কর্ণধার। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে আগামী প্রজন্মকে সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলার দায়িত্ব আমাদের সকলের। মেধা যাচাই ও বিকাশের লক্ষ্যে রবীন্দ্র-নজরুল স্মৃতি মেধাবৃত্তি পরীক্ষা কমিটির এই উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়। গত ২৬ অক্টোবর ২০১৮ শুক্রবার নগরীর চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মিউনিসিপ্যাল মডেল স্কুল এন্ড কলেজে রবীন্দ্র-নজরুল স্মৃতি মেধাবৃত্তি পরীক্ষার হল পরিদর্শনকালে তিনি এই অভিমত ব্যক্ত করেন। এই সময় আরো উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান, জামালখান ওয়ার্ডের সম্মানিত কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, বাংলাদেশ গীতা শিক্ষা কমিটি (বাগীশিক) কেন্দ্রীয় সংসদের প্রধান উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তপন কান্তি দাশ, চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট চন্দন তালুকদার, শ্রীশ্রী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ বাংলাদেশ – কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দে, বাগীশিক কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি দেশপ্রিয় চৌধুরী বিনয়, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শুভাশীষ শর্মা, প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক পলাশ কান্তি রণি, চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক অর্পণ ব্যানার্জী, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মিউনিসিপ্যাল মডেল স্কুল এন্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সাহেদুল কবির চৌধুরী, চট্টগ্রাম রিপোটার্স ফোরামের সাধারণ সম্পাদক জনাব আলীউর রহমান, বাগীশিক কেন্দ্রীয় সংসদ নেতা প্রকৌশলী সুমন সেন, যীশু সেন, চন্দন দেবনাথ, ডা. বিদ্যুত দাশগুপ্ত, শিক্ষানুরাগী আশীষ দে মনি, রবি শংকর আচার্য্য, ডা. এস কে দেব সজল, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিজিএম অসীম চৌধুরী, শিক্ষক জুবায়ের জসীম, বাগীশিক চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক শিক্ষক রূপক শীল, সহ-সভাপতি শিক্ষক দেবাশীষ দত্ত ক্রেডিট, সাংগঠনিক সম্পাদক রূপন মহাজন, অর্থ সম্পাদক মিশন দত্ত সপু, সহ-অর্থ সম্পাদক শিক্ষক সব্যসাচী দেব টিপু, সহ-দপ্তর সম্পাদক রাজু দে, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. পিয়াল আচার্য্য, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক বিপলু দাশ, প্রকাশনা সম্পাদক অনিক দে যীশু, সহ-প্রকাশনা সম্পাদক রূপম সিকদার অপু, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শিক্ষক লক্ষ্মীকর চৌধুরী, সহ-মহিলা সম্পাদক শিক্ষক রিংকু ভট্টাচার্য্য, ত্রান ও পুনর্বাসন সম্পাদক অধ্যাপক জয়া দত্ত, নির্বাহী সদস্য সজল দাশ, নির্বাহী সদস্য শিক্ষক লিটন দাশগুপ্ত, নির্বাহী সদস্য বিদ্যুত কুমার দে, বাগীশিক চট্টগ্রাম মহানগর সংসদ নেতা ডা. দেবাশীষ মজুমদার, মৃণাল কান্তি দাশ, বাগীশিক উত্তর জেলা সংসদ নেতা প্রিয়াশীষ চক্রবর্ত্তী, বাগীশিক বাঁশখালী উপজেলা সংসদের সভাপতি শংকর প্রসাদ দাশ (প্রধান শিক্ষক), সাধারণ সম্পাদক কাঞ্চন গুপ্ত (প্রধান শিক্ষক), বাগীশিক চন্দনাইশ উপজেলা সংসদের সভাপতি সুজন মজুমদার, বাগীশিক বোয়ালখালী উপজেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক শিক্ষক সত্যপ্রিয় শীল, পাপড়ি দাশ (প্রধান শিক্ষক), শিক্ষক টিংকু ভট্টাচার্য্য, প্রভাষক সঞ্জয় ধর, প্রভাষক অরূপ কুমার চৌধুরী, ডা. সৌমেন আচার্য্য, লিটন কুমার দাশ, ডা. স্বপন দাশ, ঔপন্যাসিক দুলাল মল্লিক, অধ্যাপক প্রিয়তোষ চৌধুরী, শিক্ষক রাম মজুমদার, শিক্ষক মিল্টন আচার্য্য, শিক্ষক জিকু দে, শিপ্রা দাশ, অপর্ণা চৌধুরী, পুলক কুমার মিত্র প্রমুখ। রবীন্দ্র-নজরুল স্মৃতি মেধাবৃত্তি পরীক্ষা কমিটি ২০১৮ এর সমন্বয়ক অধ্যাপক শিপুল কুমার দে, আহবায়ক প্রকৌশলী সুভাষ গুহ, যুগ্ম-আহবায়ক লায়ন ডা. বিধান মিত্র, সদস্য সচিব শিক্ষক শ্যামল বৈদ্য সবুজ, যুগ্ম সমন্বয়ক শিক্ষক মৌসুমী চৌধুরী, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক টিংকু চৌধুরী মেধাবৃত্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পাদনে সহযোগিতা করায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র আলহাজ্ব আজম নাছির উদ্দিন, পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থী, অভিভাবক, হল পর্যবেক্ষক, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মিউনিসিপ্যাল স্কুল ও কলেজ কর্তৃপক্ষ সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, প্রথমবারের মত আয়োজিত এই পরীক্ষায় ৪র্থ ও ৫ম শ্রেণির প্রায় ৮০০ ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করে। ৪০ জন শিক্ষক মেধা বৃত্তি পরীক্ষায় হল পর্যবেক্ষনের দায়িত্ব পালন করেন। আগামী ১২ নভেম্বর ২০১৮ রবীন্দ্র-নজরুল মেধাবৃত্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হবে। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জাতীয় কবি নজরুল ইসলামের স্মৃতিস্মারক এই মেধাবৃত্তি পরীক্ষা চট্টগ্রামে ব্যাপক সাড়া লাভ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*