ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চলে টলমল করে টাকার গাছ

ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চলে টলমল করে টাকার গাছ

রোকনুজ্জামান সবুজ জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরের ইসলামপুর ও মেলান্দহ উপজেলার ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চলে টলমল করেছে টাকার গাছ খ্যাত দেশের জনপ্রিয় বেগুন। এ অঞ্চলের কৃষকরা বেগুন গাছকে টাকার গাছ হিসেবে মনে করেন। অনুকুল আবহাওয়ার কারণে চলতি বছর বেগুনের বাম্পার ফলনের আশা করছে কৃষি বিভাগ। ভাল দাম পেলে বেগুন থেকে কৃষকদের প্রায় ৬ কোটি টাকা আয় হবে বলে প্রত্যাশা স্থানীয় কৃষি বিভাগের ।
ইসলামপুর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, অনুকুল আবহাওয়ার জন্য ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চলে কৃষকরা বেগুন চাষে ঝুকে পড়েছে। চলতি মওসুমে ইসলামপুরে ৬০ হাজার মেট্রিক টন বেগুন উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ৩ হাজার ৭শ’ ৫০ একর জমিতে বেগুন চাষ করা হয়েছে। যা গত বছরের চেয়ে প্রায় দেড় হাজার একর বেশি।
সূত্র জানায়, বারি-১ জাতের বেগুন ইসলামপুরে বেশি চাষ হয়ে থাকে। সারাদেশে যার ইসলামপুরের বেগুন নামে ব্যাপক কদর রয়েছে। এটি একর প্রতি কমপক্ষে ১৫ মেট্রিক টন ফলন হয়।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ভাল দাম পেলে ৬০ হাজার মেট্রিক টন বেগুন থেকে কৃষকদের এ বছর প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা আয় হবে। উপজেলা কৃষি অফিসের পক্ষ থেকে বেগুনচাষীদের নানা পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।
উপজেলার চর হাতিজা গ্রামের মুক্তার আলী জানান, এ বছর বন্যা ও বৃষ্টি কম হওয়ায় বেগুন ক্ষেত অনেক ভাল হয়েছে। ডিগ্রিরচর গ্রামের চাষী আব্দুল হাই জানান, এলাকার মানুষ বেগুন টালকে (ক্ষেত) টাকার ক্ষেত আর বেগুন গাছকে টাকার গাছ বলে থাকেন। এখন কৃষকদের একটু কষ্ট হলেও বেগুন ধরা শুরু হলে প্রতি দিন ঘরে টাকা আসবে।
মেলান্দহ উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চলে ১ হাজার ২’শ ৬২ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের বেগুন চাষ হয়েছে। এতে প্রায় ৫০ হাজার মেট্রিক টন উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম জানান-উপজেলার ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চলের মাটি বেগুন চাষে জন্য উপযযোগি হওয়ায় লাভজনক এ ফসল চাষে আগ্রহী কৃষকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*