পাবনা-৪ আসনে বিএনপি’র মনোনয়ন প্রত্যাশী রবিউল ইসলাম রবি

পাবনা-৪ আসনে বিএনপি’র মনোনয়ন প্রত্যাশী রবিউল ইসলাম রবি

আর কে আকাশ, পাবনা প্রতিনিধি : পাবনা-৪ আসনে (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) বিএনপি দলীয় মনোনয়ন পেতে দলীয় কার্যালয় হতে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন আটঘরিয়া উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের কৃতি সন্তান রবিউল ইসলাম রবি। তিনি শহীদ জিয়ার আদর্শ ও দেশপ্রেমে অনুপ্রাণিত হয় স্কুল জীবন থেকেই ছাত্ররাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হন।
দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মুক্তি আন্দোলনের অন্যতম নেতা আটঘরিয়া উপজেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি রবি ছাত্র জীবন থেকেই জাতীয়তাবাদী আদর্শের সৈনিক হিসাবে ছাত্রদল, যুবদল ও বিএনপি’র বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।
রবিউল ইসলাম রবি ১৯৮৪ সালে আতাইকুল উচ্চ বিদ্যালয় হতে এসএসসি, ১৯৮৭ সালে তেজগাঁ কলেজ হতে এইচএসসি ও স্নাতক ডিগ্রি এবং তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় হতে মার্কেটিং বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের একজন বলিষ্ট কর্মী হিসাবে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে অংশ গ্রহণ করেছেন।
লক্ষীপুর গ্রামের সমাজ সেবক মরহুম হাবিবুর রহমান বুলু’র বড় ছেলে রবিউল ইসলাম রবি আটঘরিয়া থানা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক, লক্ষীপুর ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি ও আতাইকুল থানা বিএনপি’র আহ্বায়ক, জেলা বিএনপির নিরীক্ষা ও শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য তিনি নিজ গ্রামে একটি সামাজিক সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। রবি অসহায় পরিবারের পাশে থেকে নানা ধরনের সাহায্য সহযোগিতা করে থাকেন। একজন রাজনীতিবিদ, নেতা, সংগঠক, দেশপ্রেমিক, অসাম্প্রদায়িক মনোভাব, উদারতা যে দিক হতে বিবেচনা করা হোক না কেন নিবিড়ি পর্যালোচনায় রবিউল ইসলাম রবি যে কোন বিবেচনায় অনবদ্য।
অসাধারণ ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন নিদাঘ চরিত্রের অধিকারী একজন সফল সংগঠক। আদর্শ, নৈতিকতা ও সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে বিভিন্ন কর্মকান্ডের মাধ্যমে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিতে চেয়েছেন নিজ জন্মভুমিকে।
রাজনৈতিক জনপ্রিয়তার এই পথ পরিক্রমায় বিভিন্ন প্রতিকুলতার বিরুদ্ধে মাথা উচু করে দাড়াবার দু:সাহসিক দৃষ্টান্ত রয়েছে তার। সময়ের সাথে তিনি নিজেকে সু-সংগঠক হিসেবে নিজের পরিচিতি অর্জনেও সার্থক হয়েছেন। তৈরি হয়েছে তার সামাজিক অবস্থান। আর এই সামাজিক অবস্থান দিয়েই অত্র এলাকার অনেক বেকারের কর্মসংস্থান করে দিয়েছেন। সুধি সমাজের কাছেও তার গ্রহণযোগ্যতা ঈর্শনীয়। চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য ও সৌজন্য বোধ দেখে নিঃসন্দেহে বলা যায় তিনি একজন পরিশুদ্ধ রাজনীতিবিদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*