উন্নয়নের অগ্রযাত্রা রক্ষা করার জন্য একাদশ সংসদ নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ 

একান্ত সাক্ষাৎকারে তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা অলিদ চৌধুরী

উন্নয়নের অগ্রযাত্রা রক্ষা করার জন্য একাদশ সংসদ নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ 

অলিদ চৌধুরী। তিনি চট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁও থানাধীন মোহরা ওয়ার্ডের সম্ভান্ত পরিবারের সুযোগ্য সন্তান। সাবেক ছাত্রনেতা ও তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা বিগত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মোহরা ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করেন। কাউন্সিলর নির্বাচিত না হলেও দিনরাত এলাকার সকল জনগনের এর সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। দলীয় কর্মকান্ডেও তিনি সক্রিয় কর্মী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য চরঙ্গামাটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সহ-সভাপতি, চট্টগ্রাম কলেজ প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির চট্টগ্রাম জেলা শাখার সদস্য। তার সাথে একান্ত আলাপকালে সিটিজি পোস্ট ডটকম ও মাসিক মৌচাকের সাথে কথা হয়। সাক্ষাৎকারটি গ্রহণ করেছেন সিটিজি পোস্ট ডটকম এর স্টাফ রিপোর্টার মো: কুতুব উদ্দিন রাজু। আলাপচারিতার অংশ-বিশেষ পাঠকদের কাছে তুলে ধরা হয়েছে।
সিটিজি পোস্ট ডটকম : আপনি একজন সাবেক ছাত্রনেতা আগামী ২৩ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এই নির্বাচনকে আপনি কিভাবে দেখছেন?
অলিদ চৌধুরী : আমি মনে করি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন দেশ ও জাতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ। নির্বাচন গণতন্ত্র রক্ষার জন্য দীর্ঘ ২১ বছর ১৯৭৫’র পর থেকে যে প্রক্রিয়ায় দেশ চলে আসছিল এর থেকে উত্তরণ করেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। এর ধারাবাহিকতার উন্নয়নের অগ্রযাত্রা রক্ষা করার জন্য এই সংসদ নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। গত ১০ বছরে বাংলাদেশের ইতিহাসে ৪০ বছরের সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন হয়েছে। তারপরও সেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি আবারো জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে সরকার গঠন করে উন্নয়নের গতি আরো সচল হয়ে নতুন সৃষ্টি হবে। আমি মনে করি, আগামী ২৩ ডিসেম্বর যে নির্বাচন, সেই নির্বাচনে দেশ ও জাতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
সিটিজি পোস্ট ডটকম : আপনি চট্টগ্রাম-৮ আসন বোয়ালখালী, চান্দগাঁও, পাঁচলাইশ আসনের ভোটার। এ আসনে গতবার মহাজোটের প্রার্থী মাঈনদ্দিন খান বাদল নির্বাচন করে নির্বাচিত হন। এবার আওয়ামী লীগ থেকে অনেক প্রার্থী মনোনয়ন দৌড়ে রয়েছে। সেখানে যদি আবারও মাঈনদ্দিন খান বাদল চলে আসে তখন আপনাদের করণীয় কি?
অলিদ চৌধুরী : জননেত্রী শেখ হাসিনা যে সিদ্ধান্ত দেবে সে সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে আমরা কাজ করে যাব। জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের সতেরো কোটি মানুষের আস্থার ঠিকানা। চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মাঈন উদ্দিন খান বাদল প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এবারের নির্বাচনে যদি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় আসে, তাহলে আমাদের স্বপ্নের সেতু ‘‘কালুরঘাট ব্রিজ’’কে নতুনভাবে পূন:নির্মাণ করে দিবেন।
শেখ হাসিনা যদি মহাজোট থেকে মাঈনদ্দিন খান বাদলকে মনোনয়ন দেন আমরা তার সিদ্ধান্ত মাথা পেতে নেব এবং তাকে নির্বাচিত করার জন্য সকলে মিলে কাজ করব।
সিটিজি পোস্ট ডটকম : জননেত্রী শেখ হাসিনা একাদশ নির্বাচনে তরুণ প্রার্থীদের প্রাধান্য দিচ্ছেন। আপনি তরুণ রাজনীতিবিদ হিসাবে এটা কিভাবে দেখছেন?
অলিদ চৌধুরী : তরুণ প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর ধারাবাহিকতাকে রক্ষা করে কাজ করছেন। ৭০’র নির্বাচনে যখন বঙ্গবন্ধু দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেন তখন বঙ্গবন্ধু তরুণ নেতৃত্বকে বেশী প্রাধান্য দিয়েছেন। শেখ হাসিনা আগামী ২০২১ ও ২০৪১ এই মিশনকে সামনে নিয়ে তরুণ নেতৃত্বকে সামনে নিয়ে আসছেন। সেজন্য আমরা মনে করি তরুণ নেতৃত্বকে সামনে আনার প্রচেষ্টার জন্য একটা ভালো দিক। দেশ ও জাতির জন্য একটি সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা।
সিটিজি পোস্ট ডটকম : জননেত্রী শেখ হাসিনা একটি কথা বারবার বলেছেন, দল যাকে মনোনয়ন দেবে তার পক্ষে কাজ করতে হবে। যে বিরোধিতা করবে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। এটা আপনি কিভাবে দেখছেন?
অলিদ চৌধুরী : এটা নেত্রীর যথাযথ সিদ্ধান্ত। সঠিক একটা জায়গায় এসে জবাবদিহিতা থাকতে হবে। দল করো, সংগঠন করো, যাই করো না কেন। যেটা করি না কেন দলের প্রত্যেকটা নেতাকর্মীকে জবাবদিহিতার আওতায় আসতে হবে। দলের মধ্যে প্রতিযোগিতা থাকা ভালো, দলের মধ্যে ঘাপটি মেরে বসে থাকা অসাংগঠনিক ব্যক্তি দলের সিদ্ধান্তকে অমান্য করবে, তারা দলে থেকেও না থাকাই ভালো।
সিটিজি পোস্ট ডটকম : আপনি সাবেক ছাত্রনেতা হিসেবে সর্বসাধারণের নৌকায় ভোট দেওয়ার বিষয়ে কিছু বলেন?
অলিদ চৌধুরী : আমার মনে হলো, চট্টগ্রাম-৮ আসন সিটি কর্পোরেশন এর মধ্যে। চট্টগ্রামকে বাণিজ্যিক রাজধানী করতে সকল অবকাঠামোর উন্নয়নে শেখ হাসিনার নৌকা প্রতীকে আবারো ভোট দিয়ে উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে হবে। নৌকার কোন বিকল্প নেই। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সমন্বয়ে এখন শত হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হতে চলেছে। এই সরকার যদি পরিবর্তন হয় তাহলে শত হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হবে। এখন চলমান তাতে চট্টগ্রাম-৮ আসনের মানুষ বেশী ক্ষতিগ্রস্থ হবে। চট্টগ্রামে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প রয়েছে যা বাস্তবায়নের হচ্ছে। তাই আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীক ছাড়া কাউকে বিকল্প ভাবা যায় না। আগামী ৩০ ডিসেম্বর সবাইকে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানাই।
সিটিজি পোস্ট ডটকম : মাসিক মৌচাক ও সিটিজি পোস্ট ডটকমকে সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।
অলিদ চৌধুরী : আপনার মাধ্যমে সিটিজি পোস্ট ডটকম ও মাসিক মৌচাকের সকল পাঠক এবং মোহরা ওয়ার্ড এর সর্বস্তরের জনসাধারণকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও মোবারকবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*