চাঁদাবাজির দায়ে আটক পটুয়াখালী জেলা এস,এ টিভির সাংবাদিক ও তার সহযোগী, থানায় মামলা

চাঁদাবাজির দায়ে আটক পটুয়াখালী জেলা এস,এ টিভির সাংবাদিক ও তার সহযোগী, থানায় মামলা
উজ্জ্বল শিকদার, স্টাফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালী জেলার এস,এ-টিভির সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম ৪২ ও তার সহযোগী আলী আহম্মেদ ৩৬ কে চাঁদাবাজির দায়ে আটক করেছেন মির্জাগঞ্জ থানা পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানাযায় বেলা এগারো ঘটিকা পটুয়াখালী মির্জাগঞ্জ উপজেলার দৈউলিয়া পল্লী মঙ্গল মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ চাঁদাবাজির ঘটনাটি ঘটে। বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেন খান বলেন। এস,এ-টিভির সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম ও তার সহযোগী বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে বিভিন্ন অনিয়ম ও অভিযোগে ভিত্তিহীন বর্ননা শুরু করে এবং মিথ্যা সংবাদ প্রচারের ভয়বিথী দেখায়। আমরা নমোনিয়তা প্রকাশ করলে তিনি উত্তেজিত হয়ে পড়েন। পরোক্ষনে আড়ালে ডেকে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে।সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম ও তার সহযোগী স্থানত্যাগ করার পূর্বে নগদ দু হাজার টাকা ও বাকী আটচল্লিশ হাজার টাকা দেয়ার সময় সিমা বেঁধে
দিয়ে রক্তচক্ষু দেখায়। আমরা কালক্ষেপণ না করে সার্বিক বিষয় মির্জাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিতে গেলে সেখানেও তাদের উপস্থিতি
লক্ষকরা যায়। পূর্বের ন্যায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কক্ষে প্রবেশ করে এবং বিভিন্ন অনিয়মের ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে। দুটি বিষয় উপজেলা
নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করলে তিনি মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জকে জানালে ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়।
স্থানীয় গনমাধ্যম সূত্রে জানাযায়, চাঁদা দাবির অপরাধে দৈউলিয়া পল্লী মঙ্গল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেন খান বাদী হয়ে মির্জাগঞ্জ থানায় একটি চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন। অনুসন্ধানে জানাযায়, সদ্য জামিনে মুক্তিপ্রাপ্ত ইয়াবা মামলার আসামি সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম। পটুয়াখালী থানা পুলিশের সূত্রে জানাযায়, প্রভাবশালী মিডিয়ার আদলে এস,এ-টিভির সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম ও তার সহযোগী মাদকদ্রব্য বিক্রি ও সেবনে করে আসছে। সরেজমিন প্রমানের অপেক্ষায় ছিলেন থানা
পুলিশ। আরো জানাযায় অনুরুপ প্রভাবশালী মিডিয়ার চাঁদরে ইয়াবা ব্যবসা চলতে পারে বলে গোপন সূত্রে জানাযায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*