তামাবলি স্থলবন্দরে যাত্রীদরে ব্যাগ তল্লাশিকে কেন্দ্র করে বিজিবি ও কাস্টমস র্কমর্কতাদরে মধ্যে সংঘর্ষ: আহত ৫

তামাবলি স্থলবন্দরে যাত্রীদরে ব্যাগ তল্লাশিকে কেন্দ্র করে বিজিবি ও কাস্টমস র্কমর্কতাদরে মধ্যে সংঘর্ষ: আহত ৫
জৈন্তাপুর প্রতিনিধি– সিলেট তামাবিল স্থল বন্দরে ভারতে গমন ও বহির্গমন যাত্রীদের ব্যাগ তল্লাশিকে কেন্দ্রে করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও কাস্টমস কর্মকর্তাদের মাধ্যে বিরোধের জের ধরে বিজিবির হাতে ৫ জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন, নেত্রকোনা জেলার চন্দন চৌধুরী ছেলে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা তুহিন চৌধুরী (৩০), বগুড়া জেলার হাবিবুর রহমানের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান (৩২), বিশ্বজিত, সিলেট বাগবাড়ী এলাকার জমশেদ খান এর ছেলে রফিক খান (৩২) ও সজল কান্তি।
বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে বিজিবি ও কাস্টমস কর্মকর্তাদের মাঝে দফায় দফায় সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে।স্থানীয় ও কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে সিলেটের রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী ও ভারতীয় নাগরিক শ্রী রোপেন, রবার্ট থারংসি ও মতি সরণ নামক তিনজন তামাবিল ইমিগ্রেশন দিয়ে বাংলাদেশে আসে। এ সময় তামাবিল জিরো পয়েন্ট বিজিবির চেকপোস্টে দায়িত্বরত সদস্যরা তাদেরকে তল্লাশি করতে যায়। এতে কাস্টমস র্কতৃপক্ষের লোকজন বাধাঁ দিয়ে বিজিবি সদস্যদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ইমিগ্রেশন দিয়ে গমন ও বহির্গমনকারী যাত্রীদের ব্যাগ শুধু কাস্টমস কর্তৃপক্ষের লোকজনরাই তল্লাশি করবে। এ বিষয়টি নিয়ে তামাবিল কাস্টমস কর্মকর্তাদের সাথে বিজিবির সদস্যদের বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে বিজিবি সদস্যরা জোড়র্পূবক তিন যাত্রীর ব্যাগ তল্লাশি করে তাদের কাছ থেকে ২ বোতল মদ পায়। এ সময় বিজিবি ও কাস্টমস এই দু’পক্ষের মাঝে বিরোধ দেখা দেয়। সৃষ্ট বিরোধ নিয়ে সন্ধ্যার পর উভয় পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বাধে। সংর্ঘষে কাস্টমস কর্তৃপক্ষের ৫ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা তুহিন ও মুস্তাফিজকে গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকী আহতদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
এ ব্যাপারে তামাবিল স্থল বন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা শিপন কুমার দাস জানান, গমন ও বহির্গমন যাত্রীদের তল্লাশির নিয়ম না থাকলেও বিজিবির সদস্যরা জোর পূর্বকভাবে কয়েকজন যাত্রীর ব্যাগ তল্লাশি করতে যায়। এতে কাস্টমসের লোকজন বাধা দিলে বিজিবির সদস্যরা তাদের উপর হামলা চালায়। এ নিয়ে বিরোধের জের ধরে সন্ধ্যার পর পূণরায় হামলা চালালে কাস্টমসের দুজন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তাসহ ৫জন আহত হয়। এদিকে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ ব্যাপারে বিজিবির পক্ষ থেকে কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*