দীর্ঘ দশ বছর পর মোছলেম উদ্দিনের মুখে বাদলের সুনাম, নেতা-কর্মিরা উজ্বিবিত। নৌকা ও কালুরঘাট ব্রীজ দুটোরই জয়ের আশাবাদ এলাকাবাসির

দীর্ঘ দশ বছর পর মোছলেম উদ্দিনের মুখে বাদলের সুনাম, নেতা-কর্মিরা উজ্বিবিত। নৌকা ও কালুরঘাট ব্রীজ দুটোরই জয়ের আশাবাদ এলাকাবাসির

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দীর্ঘ দশ বছর পর ঐক্যবদ্ধ বোয়ালখালী আওয়ামীলীগ ও মহাজোটের নেতৃবৃন্দ এক মঞ্চে দাড়িঁয়ে হাতে হাত রেখে সকল ভেদাভেদ ভুলে একসাথে কাজ করার ঘোষনা দিলেন। এ সময় মোছলেম উদ্দিনের মুখে বাদলের সুনাম শুনে উপস্থিত নেতা-কর্মিদের উজ্জিবিত হতে দেখা গেল। সাথেই দর্শক সারিতে স্লোগান উঠল বাদল- মোছলেম ভাই-ভাই নৌকা মার্কায় ভোট চাই। এতে অনেকেই আশাবাদী হয়ে উঠলেন- এবার তাহলে এ আসনে নৌকা ও কালুরঘাট ব্রীজ দু’টোরই জয় হবে। নেতাদের মুখেও শুনা গেল আশ্বাষের বাণী। বাদল বললেন- নির্বাচিত হতে পারলে এক বছরের মাথায় কালুরঘাট ব্রীজ করতে না পারলে সংসদ হতে পদত্যাগ করবো, একধাপ এগিয়ে মোছলেম উদ্দিন বললেন- আমি ও বাদল সাহেব দু’জনই অনেক চেষ্টা করে কালুরঘাট ব্রীজ নির্মানের প্রক্রিয়াকে অনেকদূর পর্যন্ত এগিয়ে এনেছি। এখন শুধু দৃশ্যমান বাকি। তবে আবারো সরকার গঠন করতে পারলে ৬ মাসের মধ্যেই কালুরঘাট ব্রীজ করা হবে বলে ঘোষনা দেন তিনি। চট্টগ্রাম ৮ আসনের নৌকা মার্কার মহাজোট প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য মঈন উদ্দিন খান বাদল ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোছেলেম উদ্দিন আহমদ এর উপস্থিতিতে গতকাল আদর কমিউনিটি সেন্টারে বোয়ালখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় এমন চিত্র দেখা গেছে। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোছেলেম উদ্দিন আহমদ। প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান। অতিথি ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও মানব সম্পাদক বোরহান উদ্দিন এমরান, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক আবদুল কাদের সুজন, ত্রান বিষয়ক সম্পাদক শাহনেওয়াজ হায়দার শাহিন। উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল আমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক এস এম জহিুরুল আলম জাহাঙ্গীরের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম, উপজেলা আ’লীগের একাংশের সভাপতি-সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আহমদ হোসেন ও মুক্তিযোদ্ধা এস এম সেলিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক রেজাউল করিম বাবুল, জাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি এড. আবুল হাশেম, ছৈয়দুল আলম, দক্ষিন জেলা কমিটির আদিবাসী ও সংখ্যালগু সম্পাদক শ্যামল বিশ্বাস, উপজেলা জাসদের সভাপতি মনির উদ্দিন খান , সাবেক ওয়াসা শ্রমিক নেতা নুরুল ইসলাম, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি সাইদুর রহমান খোকা প্রমূখ। এ সময় সেলিনা খান বাদল, এস এস জসিম চেয়ারম্যান, আলহাজ্ব বেলাল হোসেন চেয়ারম্যান, পৌরসভা আওয়ামীলীগের আহবায়ক জহরুল ইসলাম, যুগ্ন আহবায়ক নুরুল গণি শাহ, শেখ শহিদুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান রানা, সাধারণ সম্পাদক মোঃ ওসমান গনি, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি সিনিয়র সহ সভাপতি হাজী নাছের আলী, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন তালুকদার, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শমীম আরা বেগম, সাধারণ সম্পাদক রেবেকা সুলতানা মনি, সদর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছ ডিলার, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সেলিম, সাধারণ সম্পাদ সাইদুল আলম, সায়েম কবির, মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইয়াছির আরাফাত কচি, জেলা আওয়ামী আইনজীবি পরিষদ নেতা এডভোকেট সেলিম চৌধুরী সহ সকল অঙ্গসংঘটনের নেতা-কর্মিরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*