চট্টগ্রামস্থ চকরিয়া-পেকুয়াবাসির সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের সাথে মতবিনিময় সভা করলেন আলহাজ্ব জাফর আলম

চট্টগ্রামস্থ চকরিয়া-পেকুয়াবাসির সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের সাথে মতবিনিময় সভা করলেন আলহাজ্ব জাফর আলম
মোঃ নাজমুল সাঈদ সোহেল , কক্সবাজার প্রতিনিধি :  কক্সবাজার-১(চকরিয়া-পেকুয়া) আসনে আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনা তথা আওয়ামীলীগ (মহাজোট) মনোনীত প্রার্থী চকরিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলমকে নৌকা প্রতকে বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করার অভিপ্রায়ে গতকাল শুক্রবার (৭ডিসেম্বর) বিকেলে চট্টগ্রামে বসবাসরত চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার সকল শ্রেণী-পেশার জনগনের অংশগ্রহনে চকরিয়া-পেকুয়া ছাত্র যুব পরিষদের মিলনমেলা ও মতবিনিময় সভা চট্টগ্রাম শিশু একাডেমী প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের বিভিন্ন কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থী, চট্টগ্রামস্থ চকরিয়া সমিতির সম্মাণিত সকল নেতৃবৃন্দ, চট্টগ্রামে বসবাসরত চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার সকলস্তরের নাগরিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
চট্টগ্রামে বসবাসরত প্রবীণ শিক্ষানুরাগী ডা.শামশুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে ও চট্টগ্রাম আইন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি নোমান জিহাদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া-পেকুয়া (কক্সবাজার-১) আসনে আওয়ামীলীগ (মহাজোট) মনোনীত প্রার্থী চকরিয়া উপজেলা পরিষদের সদ্য সাবেক চেয়ারম্যান ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম।
অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি আওয়ামীলীগের এমপি প্রার্থী চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম বলেন, এলাকার উন্নয়ন ও জনগনের কল্যানে আমার রাজনীতি। চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার জনগন আমার প্রাণ, আমার শক্তি। তাদের ভালবাসা নিয়েই আমি সামনে এগিয়ে যেতে চাই। কারণ জনগনের কাছে আমি দায়বদ্ধ। তাদের জন্য কাজ করতে পারলে আমি স্বার্থক। অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় চকরিয়া-পেকুয়া জনপদে আওয়ামীলীগ সাংগঠনিকভাবে এখন অনেক শক্তিশালী ও পরীক্ষিত সংগঠন হিসেবে জনগনের আস্থা অর্জন করেছে। নেতাকর্মীরা এখন দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ। আমাদেরকে এই অর্জন ধরে রেখে আগামী নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। আমি চাই চকরিয়া-পেকুয়াবাসির ভালবাসা সাথে নিয়ে বারবার হাতছাড়া হওয়া এই আসনটি এবার জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে।তিনি সভায় উপস্থিত চট্টগ্রামেরর বিভিন্ন কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার সকল শিক্ষার্থীদের কাছে আহবান জানিয়ে বলেন, আপনারা দেশের ভাল ভাল বিদ্যাপীঠে লেখাপড়া করছেন। দেশের সার্বিক উন্নয়ন অগ্রগতির বিষয়ে আপনাদের ভালো ধারণা আছে। কোন সরকার ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন হবে তা ভালো করে জানেন। তাই বলবো, আপনাদের সমুচিত সিদ্বান্তের আলোকে সার্বিক সহযোগিতা থাকলে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলাকে অবশ্যই অবশ্যই উন্নয়নের মাধ্যমে মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে পারবো। সেইজন্য সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করতে হবে।জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের অগ্রউন্নয়ন ও জনগনের কল্যানে কাজ করতে ভালবাসেন। তাঁরঅনুপ্রেরনায় আমি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চকরিয়া-পেকুয়া আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেয়েছিলাম। আমার নেত্রীর নির্দেশে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিই। সেই থেকে চকরিয়া-পেকুয়াবাসির মুখে হাসি ফুটাতে উন্নয়নে সব ধরণের কাজ করে যাচ্ছি। আগামীতেও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। সেইজন্য একাদশ নির্বাচনে আওয়ামীলীগকে আবারও রাষ্ট্র ক্ষমতায় আনতে হবে। দেশরত্ম শেখ হাসিনাকে পুনরায় দেশের প্রধানমন্ত্রী পদে বসাতে হবে।দেশের অগ্রগতি ও জনগনের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার মতো সৎ দক্ষ ও বিচক্ষন নেতৃত্বের বিকল্প নেই। সরকারের উন্নয়ন অগ্রগতির সাথে চকরিয়া-পেকুয়াবাসিকে অবিচল থাকতে হবে। সেইজন্য আগামী নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে চকরিয়া-পেকুয়া আসনটি উপহার দিতে হবে। ইনশাল্লাহ জনগনের অকুষ্ঠ ভালবাসা নিয়ে একাদশ নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিতের মাধ্যমে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতের পরশে সত্যিকারের উন্নয়নে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলাকে ঢেলে সাজানো হবে। আমি চাই তারণ্যের জয়গানে নতুন অভিযাত্রায় সম্ভাবনার চকরিয়া-পেকুয়াকে এগিয়ে নিতে। সেইজন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের প্রতীক নৌকার জন্য সবার কাছে দোয়া ও ভোট চাই।
অনুষ্টিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাবেক সহ-সভাপতি ড.খালেদ মিজবাউজ্জামান, ডা.রেজাউল করিম মনু, চট্টগ্রামের ইপিজেটস্থ বেপজার সাবেক চেয়ারম্যান আতাউল হক, চকরিয়া পৌরসভার প্রথম চেয়ারম্যান আলহাজ আনোয়ারুল হাকিম দুলাল, চট্টগ্রামস্থ চকরিয়া সমিতির সভাপতি কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক এবং জেলা পরিষদের সদস্য লায়ন কমরউদ্দিন আহমদ, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এসএম গিয়াস উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আমিনুর রশিদ দুলাল, চট্টগ্রাম নাসিরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল লতিফ, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম লিটু, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মো.ওয়ালিদ মিল্টন, চট্টগ্রামস্থ চকরিয়া সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এম হামিদ হোছাইন, টইটং ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী,আওয়ামীলীগ নেতা আমিনুল হক বিএসসি, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগ নেতা নাছির উদ্দিন নোবেল, চট্টগ্রাম সরকারি সিটি কলেজের সাবেক ভিপি আবু তাহের,মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এম কায়সার উদ্দিন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মনছুর উদ্দিন, চবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক তারেকুল ইসলাম, চট্টগ্রাম সিটি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ ফারুক, ছাত্রলীগ নেতা বোখারী আজম, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আরহান মাহমুদ রবেল ও সাবেক ছাত্রনেতা আবদুল বারেক টিপু প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*