যুবলীগ নেতা হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানব বন্ধন

যুবলীগ নেতা হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানব বন্ধন
ইঞ্জিনিয়ার হাফিজুর রহমান খাঁন , উপকূলীয় প্রতিনিধিঃ মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ীতে জোড়া হত্যাসহ অসংখ্যা মামলার আসামী বিএনপি ক্যাডার বদর উদ্দিন বাহিনীর হাতে যুবলীগ নেতা হেলাল উদ্দিন নিহত ও জাহাঙ্গীর আলমকে আহতের ঘটনা ৫ দিন অতিবাহিত হলেও ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ হয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারের দাবীতে মাতারবাড়ী ইউনিয়ন যুবলীগ, সৈনিকলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে গতকাল ১৩ জানুয়ারী রবিবার নতুন বাজার সিএনজি ষ্টেশনে বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ ও এক মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানব বন্ধনে মহেশখালী উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সেলিম উল্লাহ সেলিম, মাতার বাড়ী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি কাশেম, সাধারণ সম্পাদক আল কুদ্দুছ মাহামুদ, সাংগঠনিরক সম্পাদক ছরওয়ার মেম্বার, বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের মহেশখালী উপজেলা শাখার সভাপতি রবিউল ইসলাম দিদার, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আবদুল-আল-কায়ুম,মাতারবাড়ী ইউনিয়ন শাখার সাধারণ সম্পাদক মো: ইব্রাহিম,সহ-সভাপতি সাদ্দাম সিকদার, ছাত্র পরিষদের মাতারবাড়ী ইউনিয়ন শাখার সভাপতি শিব্বির, যুব নেতা মো: তারেক, যুব নেতা শাহাব উদ্দিনসহ বক্তারা বলেন,মাতারবাড়ী সিকদার পাড়ার বাসিন্দা জোড়া হত্যাসহ বহু মামলার আসামী বিএনপি ক্যাডার বদর উদ্দিন, আব্বাস ও আরমানসহ ২০/৩০ জনের একটি সন্ত্রাসী দল নতুন বাজার এলাকার নিরহ লোকজনের দোকান দখল থেকে শুরু করে বিভিন্ন জনের জমি জবরদখল করে আসছে। এমনকি এ সন্ত্রাসী বাহিনীর হাতে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা কর্মী পর্যন্ত অসহায়। সর্বশেষ গত ১০ জানুয়ারী মাতারবাড়ী ১নং ওয়ার্ড যুবলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ¦ হেলাল উদ্দিনের সাথে একই এলাকার বদর উদ্দিনের ভাগিনার সাথে সামান্য তর্কাতর্কির ঘটনা ঘটে। তর্কাতর্কির একপর্যায়ে বদর উদ্দিন ও আব্বাস তাদের বাহিনী নিয়ে অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রকাশ্যে শত শত জনতার সামনে ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে। এসময় উপস্থিত বাজারের লোকজন দিকবিদিক পালিয়ে যায়। পালিয়ে যাওয়ার এক পর্যায়ে হেলাল ও তার চাচাত ভাই জাহাঙ্গীরকে চারদিকে ঘেরাও করে লোহা ও লাঠি দিয়ে ব্যাপক মারধর করলে তারা ২জনে অজ্ঞান হয়ে মাঠিতে পড়ে যায়। পরে লোকজন এসে তাদেরকে সেখান থেকে উদ্ধার করে প্রথমে চকরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থা অবনতি ঘটলে তাদেরকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হেলালের মৃত্যু ঘটে। এখনো আহত অপর জাহাঙ্গীরের অবস্থা আশংকাজনক বলে ডাক্তার জানিয়েছেন। এ ঘটনার সাথে সাথে এলাকাবাসী ২জনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে। নিহতের স্ত্রী মহেশখালী থানায় আব্বাসকে প্রধান আসামী করে একটি হত্যা মামলা রুজু করলেও পুলিশ রহস্যজক কারণে ঘটনার সাথে জড়িত মূলহোতা বদর উদ্দিন ও আব্বাস সহ অন্যান্যদের বাড়ীতে অভিযান পরিচালনা না করায় সমগ্র মাতারবাড়ীবাসী পুলিশের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। অবিলম্বে ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন যুবলীগ নেতা নুরুল হুদা মানিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*