নোয়াখালী সরকারী হাসপাতালের পলেস্তরা খসে শিশু আহত! আতংক হাসপাতাল জুড়ে

নোয়াখালী সরকারী হাসপাতালের পলেস্তরা খসে শিশু আহত! আতংক হাসপাতাল জুড়ে
জাহাঙ্গীর বাবু   ::ফেসবুকে নানা জন জানাচ্ছেন প্রতিক্রিয়া। সমাজ সেবী তাহমিনা রীতা আক্ষেপ করে তাহার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, আহারে এই হসপিটাল নিয়ে কত লেখালেখি করলাম বারবার কতৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দিলাম কাজের কাজ কিছুই হলোনা।আজ এই দূর্ঘটনা,সকাল ৬.৫৫ মিনিটের সময় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের পুরাতন ভবনের ২য় তলার ছাদ ভেঙ্গে অনেক শিশু আহত হয়েছে। হে আল্লাহ্ তুমি তাদের সুস্থতা দান করো।
আমি নিজেও এ হাসপাতালের নানা অনিয়ম নিয়ে লিখেছি। নতুন ভবন নির্মান না হওয়ায় পুরাতন পরিত্যাক্ত ভবনেই চলছে চিকিৎসা! ভবন ধ্বসে পড়ার আশংকা পুরো হাসপাতাল জুড়ে।দুর্গন্ধে আর অপরিচ্ছন্নতায় ভালো মানুষ ও অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। এরই মাঝে নোয়াখালীর জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের ছাদের পলেস্তরা খসে আট শিশুসহ ১০ জন আহত হয়েছে। 
বুধবার ১২ জুন ২০১৯  সকাল  এ দুর্ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। এদিকে ছাদ থেকে পলেস্তরা খসে পড়ার ঘটনায় ভয়ে হাসপাতাল ছাড়ছেন রোগীরা। 
অন্যদিকে বড় দুর্ঘটনার আশঙ্কা রোগীদের মধ্যে বিরাজ করছে। নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. খলিলউল্যাহ জানান, জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের ছাদের পলেস্তরা খসে আট শিশুসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। 
তাদের মধ্যে এক শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক। রোগীদের শিশু ওয়ার্ড থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। 
হাসপাতালের একটি সূত্র জানায়, তিন বছর আগে শিশু ওয়ার্ডসহ আরও তিনটি ভবনকে গণপূর্ত বিভাগ নোয়াখালী পরিত্যক্ত ঘোষণা করে। 
এর আগে ২০১৮ সালের ১২ জুলাই নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের পুরনো ভবনের দ্বিতীয় তলার একটি ওয়ার্ডের ছাদ ধসে দুই নার্স আহত হয়েছিলেন। 
তারা হলেন- সিনিয়র স্টাফ নার্স স্বপ্না মজুমদার ও শিক্ষানবিশ নার্স রানী আক্তার। পুরনো ভবন তিনটি পুরোটাই ঝুঁকিপূর্ণ।
 তার পরও স্থান সংকুলানের অভাবে ওই ওয়ার্ডগুলোতে রোগীদের চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে একাধিকবার ভবনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের ছাদের পলেস্তরা খসে পড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*