রাজশাহীতে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

রাজশাহীতে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

আমানুল্লাহ (রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি): রাজশাহীতে যুবদলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। শনিবার সকালে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসে হাজারো নেতাকর্মী। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নগরীর মালোপাড়া দলীয় কার্যালয়ের সামনে ভুবনমোহন পার্কে এক সমাবেশের আয়োজন করা হয়। রাজশাহী মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান রিটনের পরিচালনায় সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদাজিয়ার উপদেষ্টা ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) এর সাবেক মেয়র মোঃ মিজানুর রহমান মিনু। মহানগর যুবদলের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সুইটের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক রাসিক মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শফিকুল হক মিলন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সাবেক ছাত্রদল নেতা সৈয়দ শাহিন শওকত প্রমুখ। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শফিকুল হক মিলন বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদাজিয়ার উপর নির্মম নির্যাতন চালিয়ে মৌলিক অধিকার থেকেও বঞ্চিত করেছে। তার সুচিকিৎসার দাবি জানাচ্ছি। এসময় বিএনপি নেতা সৈয়দ শাহিন শওকত বলেন, জোর করে ক্ষমতায় থাকা যায়না। ফেরাউন,নমরুদ,হিটলার সবারই পতন হয়েছে। পৃথিবীতে জোর করে কেউ টিকতে পারেনি,আপনিও পারবেননা। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেন,বর্তমানে গায়েবী মামলার নাটক সাজিয়েছে সরকার। এভাবে পর্যায়ক্রমে শয়তানী মামলা,আজরাইলি মামলা আবিষ্কার করবে সরকার। ওমরাহ পালন করা মহিলাটি যদি এরকম মিথ্যাচার করে তাহলে সুশাসন থাকবে কিভাবে? বর্তমান সরকারের আমলে সাধারন ভোটাররা ভোটাধিকার হারিয়েছে। সাংবাদিকরাও অনিরাপদ বলেও উল্লেখ করেন এই সাবেক রাসিক মেয়র। প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদাজিয়ার উপদেষ্টা মোঃ মিজানুর রহমান মিনু বলেন, পৃথিবীতে কোনো স্বৈরাচার টিকতে পারেনি। এদেশেও এরশাদের পতন হয়েছিল।আপনারও পতন হবে ইনশাআল্লাহ। ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিয়ে বাংলার জনগন সরকারকে হটিয়েই ছাড়বে। যুবদলের অবদান অনস্বীকার্য উদ্ধৃত করে এই সাবেক রাসিক মেয়র বলেন, যুবদলের যুবকরা দেশের অতন্দ্র প্রহরী হয়ে কাজ করে যাচ্ছে। যার পথচলায় ৪০ বছর পূর্ণ হলো। ভবিষ্যতেও যুবদল সক্রিয় থেকে দেশ রক্ষায় ভূমিকা পালন করবে। সমাপনী বক্তব্য বিএনপির এই কেন্দ্রীয় নেতা আরও বলেন, রাজশাহী সেই পবিত্র ভূমি যেখানে ভাষা আন্দোলনের মাত্রা তীব্র থেকে তীব্রতর হয়েছিল। হযরত শাহ মখদুম রুপোস (রহঃ) এর পবিত্রভূমি থেকেই সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হবে। সেজন্য যুবদলসহ সবাইকে সজাগ থাকার আহবান জানান তিনি। যুবদলের এই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে অন্যন্যদের মাঝে আরও উপস্থিত ছিলেন – রাজশাহী জেলা যুবদলের সভাপতি মোজাদ্দেদ জামিন সুমন,সাধারণ সম্পাদক শফিকুল আলম সমাপ্ত, যুগ্ম আহবায়ক আঃ মালেক (মানিক),যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আরিফুল ইসলাম, রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি, মহানগর ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রবি,জেলা ছাত্রদল সহসভাপতি কে.এইচ. রানা শেখ, সহ সভাপতি এস.এম. আঃ আলিমসহ বিএনপির অন্যান্য অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*