আবুল কালাম আজাদের গণসংযোগ

জামালপুর-১ দেওয়ানগঞ্জ-বকশীগঞ্জ আসন: আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থী উপজেলা চেয়ারম্যান
আবুল কালাম আজাদের গণসংযোগ
রোকনুজ্জামান সবুজ জামালপুর : জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ ও বকশীগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত এ আসনে আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক স্থানীয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ। তিনি নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রাপ্তির জন্য বর্তমান এমপিকে চ্যালেঞ্জ করে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ গতকাল দুই সহ¯্রাধিক মোটর সাইকেলের একটি বিশাল বহর নিয়ে দেওয়ানগঞ্জ ও বকশীগঞ্জ উপজেলা শহরসহ দুই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকা ঘুরে গনসংযোগ করে প্রধানমন্ত্রী উন্নয়ন প্রচারণা ও নৌকা প্রতিকের ভোট প্রার্থনা করেছেন।
সরেজমিন ঘুরে জানাগেছে, দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ ছাত্র জীবনে দেওয়ানগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও দেওয়ানগঞ্জ কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি ছিলেন। তিনি দেওয়ানগঞ্জের চুকাইবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ও দেওয়ানগঞ্জ পৌর সভার মেয়রও নির্বাচিত হয়েছিলেন। বর্তমানে তিনি দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সততা ও দক্ষতার পরিচয় দিয়ে সুখ্যাতি অর্জন করছেন। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ দলীয় সর্বস্তরের নেতা কর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার সবকটি ওয়ার্ডেই গনতান্ত্রিকভাবে নিয়মিত কমিটি গঠন করেছেন। তিনি দলের সাংগঠনিক কাঠামো অত্যান্ত শক্তিশালী করে তৃণমুল পর্যায় থেকে শুরু করে উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগসহ সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনকে চাঙ্গা করেছেন। তিনি নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রাপ্তির জন্য বর্তমান এমপিকে চ্যালেঞ্জ করে কোমর বেঁধেই মাঠে নেমেছেন। তিনি দীঘৃদিন যাবত এলাকায় গণসংযোগের পাশাপাশি কেন্দ্রিয় পর্যায়ে দীর্ঘদিন যাবত জোর তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন।
দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, “ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে দীর্ঘ ৩৬ বছর পার করেছি। আমি সর্বদায় এলকায় অবস্থান করে দলীয় নেতা-কর্মীদের সুখে দু:খে পাশে দাড়িয়েছি। বিগত দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচনে নৌকার প্রতিকের বিজয় নিশ্চিত করতে গিয়ে বর্তমান এমপির ভাতিজা বিদ্রোহী প্রার্থী নুরন্নবী অপুর সমর্থদের আঘাতে আমার সহোদর বড় ভাই হাজি আব্দুস সালামকে হারিয়েছি। এরপরও বঙ্গবন্ধুর আদ্বর্শ বুকে ধারণ করেই শেষ নি:শ^াস ত্যাগ করতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*